অনেক অভিমান নিয়ে চলে গেলেন তাপস দা শোকস্তব্ধ ঋতুপর্ণা

News Desk

February 19, 2020 | 2:03 AM
blog image

অনেক অভিমান নিয়ে চলে গেলেন তাপস দা অনেক অভিমান নিয়েই সবার অগোচরে নিঃশব্দে চলে গেলেন এই মানুষটা। তাপস পালের মৃত্যুর খবরে এমনই প্রতিক্রিয়া অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর। তিনি বলেন, তাঁর মত এত শক্তিশালী অভিনেতা কম এসেছেন।

একাধিক সিনেমায় তাঁরা জুটি বেঁধেছেন। মঙ্গলবার সেই দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করলেন ঋতুপর্ণা। তিনি বলেন,’তাপসদা চলে গেলেন। একটা যুগ, একটা গুরুত্বপূর্ণ সময়ের অবসান। বাংলা সিনেমার অনেক দুর্দিনের দিনে উনি সুদিন দেখিয়েছেন বাংলা সিনেমাকে, বাংলা দর্শককে। তাঁর ভুবন ভোলানো হাসি কখনও ভোলার নয়। ‘

আরও পড়ুন :   এবার বাংলার গর্ব ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামীর বায়োপিকে অভিনয় করবেন বিরাট ঘরণী অনুষ্কা শর্মা

ঋতুপর্ণা আরও বলেন, অনেক স্নেহ-মমতা-ভালবাসা পেয়েছি এই মানুষটার কাছে , তাঁর স্ত্রী নন্দিনীর কাছে। হয়তো অনেক অভিমান নিয়েই সবার অগোচরে নিঃশব্দে চলে গেলেন এই মানুষটা।’ মঙ্গলবার ভোরে মুম্বইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।

অনেক অভিমান নিয়ে চলে গেলেন তাপস দা

আরও পড়ুন :   করোনা ভাইরাসের ধাক্কা শেয়ার বাজারে, ৮০০ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স

অভিনয় করার সময়ই রাজনীতিতে আসেন তাপস পাল। তৃণমূলের টিকিটে বিধায়ক ও সাংসদ ও হয়েছেন তিনি।রোজ়ভ্যালিকাণ্ডে ২০১৬ সালের ৩০ ডিসেম্বর তাপস পালকে গ্রেফতার করে সিবিআই । তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল , রোজ়ভ্যালি থেকে আর্থিকভাবে তিনি লাভবান হয়েছেন। বিতর্কিত মন্তব্য ও রোজভ্যালিকাণ্ডে গ্রেফতারের পর থেকেই তৃণমূলের সঙ্গে তাপসের দূরত্ব বাড়ে বলে ওয়াকিবহাল মহলের মত।

জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার বেশ কিছুদিন পর দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে গিয়েছিলেন তাপস। সক্রিয় রাজনীতিতে ফেরার ইচ্ছাপ্রকাশও করেছিলেন তিনি। কিন্তু দল তাঁকে আর পাত্তা দেয়নি। গত লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থীও হননি তাপস পাল।

আরও পড়ুন :   মিঠুন বলিউডে সফল হিরো হলে অভিনয় ছেড়ে দেব’, জিতেন্দ্রর এই অপমানের যোগ্য জবাব দেন ‘মহাগুরু’

এই ধরণের তাজা খবর পেতে আমাদের এই পৃষ্ঠা টিকে দেখবেন আপনাদের বন্ধুদের পেয়ে দিতে সাহার্য্য করবেন এবং মাজখানে শেয়ার করে দিবেন Google

আরও পড়ুন : পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বড়সড় পদক্ষেপ, কি করবে ইমরান খান! চিন্তার ভাঁজ ইমরানের কপালে