‘এত মানুষ মরছে তুমি কুকুরের শ্রাদ্ধ করছো, লজ্জা লাগে না’? প্রকাশ্যে মিমিকে বিঁধলেন নেটিজেনরা

কিছুদিন আগেই সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর পোষ্য চিকু মারা । তিনি তার পোষ্যকে নিজের বড় ছেলে বলেই ভাবতেন। প্রায়ই নিজের স্যোশাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে চিকুর সাথে নানা ছবি এবং ভিডিও ভাগ করে নিতেন। খুবই ভালোবাসতেন তিনি তার পোষ্যকে। তাই চিকুর এই হঠাৎ চলে যাওয়াটাকে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না অভিনেত্রী।

মাত্র ৮ বছর বয়সেই ক্যান্সার আক্রান্ত হয়েছিল চিকু। গত ফেব্রুয়ারি মাসেই নিজের পোষ্যের অসুস্থতার কথা নিজের স্যোশাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন অভিনেত্রী। সেখানে তিনি ভালো পশু চিকিৎসকের সন্ধানও চেয়েছিলেন নিজের অনুগামীদের কাছে। সেখানেই একজন চেন্নাইয়ে গিয়ে চিকুর চিকিৎসা করার জন্য পরামর্শ দেন। সেখানে চিকিৎসায় সারা দিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে এসেছিল চিকু। তারপর হঠাৎ করেই আর লড়াই করতে না পেরে চিকু আমাদের সবাইকে ছেড়ে চলে যায়। চিকুর ছবির সাথে তার সমাধির ছবি কোলাজ করে নিজের ইনস্টা হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন অভিনেত্রী।

তবে এরকম কঠিন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন যাদবপুরের সাংসদ। বিভিন্ন ডাক্তারদের হেল্পলাইন নম্বর শেয়ার করেছেন। সেইসব ডাক্তাররা আইসোলেসনে থাকা ব্যক্তিদের নানারকম পরামর্শ দেবেন। এছাড়াও অক্সিজেন এবং বেগ পাওয়ার জন্য নিজের সাধ্যমত নাম্বার শেয়ার করেছেন। তার এই কাজে বেশ খুশী হয়েছেন নেটিজেনরা। তবে কিছুদিন আগেই তাকে ট্রোলের শিকার হতে হয়েছিল।

চিকুর মৃত্যুর পর মিমির টাইমলাইন জুড়ে ছিল শুধুই চিকুর ছবি। অন্যদিকে রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি দিনের পর দিন খারাপ হতে থাকে। সেইসময় নেটিজেনদের একাংশ বলেন এত মানুষ মারা যাচ্ছে আর অন্যদিকে অভিনেত্রী নিজের কুকুরের শ্রাদ্ধ করতে ব্যস্ত আছেন। লজ্জা লাগে না? আবার এও বলেন পরের বার যেন কুকুরদের থেকে ভোট নেন অভিনেত্রী। এই মন্তব্যের কোনো উত্তরই দেননি অভিনেত্রী। তবে তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন অভিনেত্রী মধুমিতা সরকার। তিনি বলেন কিছু বলতে হবে বলেই কমেন্ট করছেন তারা বলার কিছু না থাকলে তাদের ব্রেনকে অস্কার নমিনেশনে পাঠাতে বলেন এই অভিনেত্রী। তারপরেই অভিনেত্রী বলেন ভগবান তোমায় আশীর্বাদ করুন। তবে মিমির উদ্দেশ্যে এই মন্তব্যই এখন ভাইরাল স্যোশাল মিডিয়া জুড়ে।