সর্বশেষ

তাপস পাল জীবন দিয়ে প্রমাণ করে গেলেন অসত্‍ সঙ্গে সর্বনাশ শেষযাত্রায় বললেন সুজন

তাপস পালের অকালমৃত্যুকে সিবিআই-কে নিশানা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। তবে তাপস পালের এই পরিণতিতে তৃণমূলকেই দায়ী করলেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। তাঁর কথায়,”নিজের জীবন দিয়ে তাপস পাল প্রমাণ করে দিলেন অসত্‍ সঙ্গে সর্বনাশ।”

তাপস পালকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসে মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন,”কেন্দ্রের একটা এজেন্সির দ্বারা অত্যাচারিত হয়ে মৃত্যু। মানসিকভাবে নিজে এমন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল, নিজে ক্ষতবিক্ষত হয়ে গিয়েছিল। মৃত্যুর আগে হয়তো জানতেও পারল না যে তাঁর অপরাধটা কোথায়?” মমতার এহেন দাবিতে সুজন চক্রবর্তীর প্রতিক্রিয়া, ওনার কথায় উত্তর দেওয়ার প্রয়োজন মনে করি না।

বাংলার মানুষের কাছে তাপস পাল পরিচিত নাম। উনি জনপ্রিয় শিল্পী ছিলেন। তাঁর অভিনয় দক্ষতা ও জনপ্রিয়তাকে ব্য়বহার করেছে তৃণমূল। কিন্তু তৃণমূলের সঙ্গ জনপ্রিয় তাপস পালকে বিভ্রান্তির শিকার করেছে। অসত্ সঙ্গে সর্বনাশ কথাটা ওনার ক্ষেত্রে খাটে। কার ক্ষতি হল? তাপসেরই হল।

তাপস পালের শেষ সময়ে তৃণমূল পাশে ছিল না বলে দাবি করেন যাদবপুরের সিপিএম বিধায়ক। তিনি বলেন, ”ভুবনেশ্বরে সুদীপ বন্দ্য়োপাধ্য়ায় ও তাপস পাল পাশাপাশি ছিলেন। সুদীপের সঙ্গে তৃণমূল যে ব্য়বহার করত, তেমন ব্যবহার তাপস পাল পেতেন না। অসত্ সঙ্গে সর্বনাশ, জীবন দিয়ে প্রমাণ করে গেলেন তাপস পাল। কাজের বেলায় কাজি কাজ ফুরোলেই পাজি, এটা দেখিয়ে দিল রাজ্যের কুশীলবরা। যতক্ষণ দরকার ছিল ওনার খোঁজ রেখেছেন, তারপর আর রাখেননি।”

তাপস পালকে গান স্যালুট দেওয়া নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন সুজনবাবু। তিনি বলেন,”আমাদের সংস্কৃতিতে, কেউ মারা গেলে কটূ কথা বলতে নেই। গান স্যালুটের গাম্ভীর্যকে নষ্ট করা হচ্ছে। যথেচ্ছ গান স্যালুট ব্যবহার করা উচিত নয়।”

মোদী সরকারের বিরুদ্ধে এজেন্সিকে ব্য়বহারের অভিযোগও করেছেন সুজন। তাঁর কথায়,”তদন্তকারী সংস্থাগুলিকে যেমন খুশি চালাচ্ছে কেন্দ্র। এনিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button