পাকিস্তানকে ৪৫ কোটি টাকা অর্থসাহায্য করেছেন শাহরুখ খান! খবর ছড়াতেই ক্ষুব্ধ নেটবাসী

বলিউডের “বাদশাহ” ও বলিউডের “কিং খান” হিসেবে একনামেই যাকে সারা দুনিয়া চেনে তিনি হলেন শাহরুখ খান। তাঁর চলচ্চিত্রের সংখ্যা অগণিত। অসামান্য একজন ব্যাক্তিত্ব তথা অসাধারণ অভিনয় দিয়ে তিনি মন জয় করে নিয়েছেন সকল মানুষের। হিন্দি চলচ্চিত্রে অবদানের জন্য ২০০২ সালে ভারত সরকার তাকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে।

১৯৮০ এর দশকের শেষের দিকে বেশ কিছু টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয়ের মাধ্যমে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু হয়। এরপর ১৯৯২ সালে দিওয়ানা ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তিনি চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। তিনি ডর, বাজীগর, আঞ্জাম চলচ্চিত্রে অভিনয় করে পরিচিতি লাভ করেন।

এরপর একে একে বাণিজ্যিকভাবে সফল চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ধনী হলিউড ও বলিউড তারকাদের তালিকায় শাহরুখ খান দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে নিয়েছে। তাকে বিশ্বের অন্যতম সফল চলচ্চিত্র তারকা বলে অভিহিত করা হয়।

কিন্তু, এই সাফলতা কিন্তু তাঁর একদিনে আসেনি। দিনের পর পর পরিশ্রমের ফলেই তিনি আজ এই জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে। অনেকেই তাঁকে ভগবান মানেন। কিন্তু সম্প্রতি কিছু মানুষ তাঁর উপর ভীষণ রেগে রয়েছেন। কিন্তু ভগবানের মতো মানুষটি কি এমন করল যার ফলে মানুষ এত রেগে গেল।

আমরা সকলেই জানি যে, করোনা ভাইরাসের কারণে দেশ জুড়ে কি পরিমান বিপর্যয় গেছে। আর সেই সময় কত মানুষ সাহায্য করেছেন। সে সেলিব্রেটি থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ সকলেই তাঁদের নিজের নিজের মতন করে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে।

আর শাহরুখ খানের ক্ষেত্রেও তাঁর অন্যথা হয়নি। কিন্তু সমস্যা হল শাহরুখ নাকি ভারতের বদলে পাকিস্তানকে ৪৫ কোটি টাকা দিয়ে সাহায্য করেছে। আর এই খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া মাত্রই সকলে তীব্র ক্ষেপে ওঠে। কিন্তু পরে জানা যায় যে, শাহরুখ খান পাকিস্তানকে কোনো টাকাই দেয় নি। পাকিস্তানের একটি সংবাদ মাধ্যম পুরোনো একটি ভিডিও চালাতেই যত গন্ডগোলের সূত্রপাত। তবে, একথা স্পষ্ট যে অভিনেতা কোনো টাকাই দেননি পাকিস্তানকে। তবে, পুরোনো ওই ভিডিও ঝড়ের বেগে ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।