পিরিয়ড নিয়ে ছুৎমার্গ নয়, সামাজিক বার্তা নিয়ে ফিরছে ধারাবাহিক ‘কড়ি খেলা’

News Desk

May 31, 2021 | 7:44 AM
blog image

সুকুমার রায় (sukumar Ray)-এর ‘পাগলা দাশু’ ধার করে বলাই যায়, ‘আবার সে এসেছে ফিরিয়া’। তবে এই কথাটি কোনো ব্যক্তি সম্পর্কে বলা হচ্ছে না। এই কথাটি প্রযোজ‍্য ‘কড়িখেলা’ সিরিয়ালটির ক্ষেত্রে। মাঝপথে বন্ধ হয়ে যাওয়া ‘কড়ি খেলা’ আবারও নতুন করে জি বাংলায় ফিরে আসছে।

প্রকৃতপক্ষে, পশ্চিমবঙ্গে করোনা অতিমারীর কারণে হঠাৎই লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি হওয়ায় টলিপাড়া সঙ্কটে পড়েছে। কারণ এর আগে মাত্র পনের দিনের লকডাউন ঘোষণা করার ফলে চ্যানেলের নির্দেশে সিরিয়াল নির্মাতারা আট-দশ দিনের এপিসোড ব্যাঙ্কিং করতে পেরেছিলেন। কিন্তু হঠাৎই লকডাউনের মেয়াদ বাড়ায় তাঁদের হাতে আর নতুন পর্বের ব্যাঙ্কিং নেই। তবে অনেক সিরিয়ালের শিল্পীরা আবার বাড়ি থেকে মোবাইলে শুটিং করে পাঠাচ্ছেন। কিন্তু সেটা কতদিন চলবে, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। ফলে জি বাংলা আর কোনো ঝুঁকি না নিয়ে ফিরিয়ে নিয়ে আসছে হঠাৎই বন্ধ হয়ে যাওয়া জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘কড়ি খেলা’। দর্শকরা ‘কড়ি খেলা’ ফিরে আসার খবরে যথেষ্ট আনন্দিত।


ভিডিও


আরও পড়ুন :   অদ্রিজার মেয়েকে ‘বৌমা’করতে চান শ্রাবন্তী! নেটদুনিয়ায় ভাইরাল দুজনের প্রিয় সন্তানের ছবি!

সিঙ্গল মাদার পারমিতার জীবন নিয়ে তৈরী হয়েছিল ‘কড়ি খেলা’-র চিত্রনাট্য। পারমিতা একাই নিজের ছেলে কুট্টুসকে বড় করে তোলে। পারমিতার মা চান, পারমিতা আবারও বিয়ে করে নিজের সংসার পাতুক। কিন্তু পারমিতা রাজি নয়। ঘটনাচক্রে একদিন তার দেখা হয় অপূর্ব সাথে। অপূর্ব ও পারমিতার বিয়ে হয়। ‘কড়ি খেলা’-র সম্প্রচার শুরু হয়েছিল চলতি বছরের 8 ই মার্চ। কিন্তু পঞ্চাশটি পর্ব সম্প্রচারিত হওয়ার পর হঠাৎই বন্ধ হয়ে যায় ধারাবাহিকটি।

আরও পড়ুন :   ১৯৮০ সালের মিস ইন্ডিয়ার জন্য এখনো পর্যন্ত অবিবাহিত রয়েছেন সালমান খান

কিন্তু ‘কড়ি খেলা’ এবার ফিরছে পারমিতা ও অপূর্বর বিবাহিত জীবনের কাহিনী নিয়ে। যে কাহিনীর অংশীদার তাদের মেয়ে সৃজাও। পারমিতার চরিত্রে অভিনয় করছেন শ্রীপর্ণা রায় (sreeporna Roy)। অপূর্বর চরিত্রে অভিনয় করছেন আনন্দ ঘোষ (Ananda ghosh)। এর মধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে ‘কড়ি খেলা’-র প্রোমো।

আরও পড়ুন :   নিউইয়র্কের রাস্তায় ১.২ লাখের ব্যাগ নিয়ে পোজ দিলেন সুহানা, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল সেই ছবি

সাম্প্রতিক প্রোমোতে এক সামাজিক বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে সিরিয়ালের তরফে। পিরিয়ড নিয়ে ছুতমার্গ নয়। অপূর্বর বড় মেয়ে প্রথমবারের জন্য রজস্বলা হন। স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টিতে অজ্ঞাত হওয়ায় তার মনের ভিতরে চলতে থাকে অস্বস্তি, নিজের বাবাকে সে কথা খুলে বলার সাহস টুকু হয় না। যদিও মেয়ের মনের কথা বুঝতে পারেন সৎ মা পারমিতা। তিনিই সৃজাকে জড়িয়ে ধরে বোঝান বিষয়টি সম্পর্কে। তবে কি এবার ঘুচবে মা-মেয়ের দূরত্ব। তার জন্য আগামীদিনের পর্ব গুলির অপেক্ষা।