পুরনির্বাচনের আগেই বেতন বাড়তে চলেছে রাজ্যের এই কর্মীদের

সামনেই পুরসভা নির্বাচন। কলকাতা সহ রাজ্যের একাধিক জায়গায় পুরসভা নির্বাচন রয়েছে। আর সেই নির্বাচনের আগেই বেতন বাড়ছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের। প্রায় ২১ হাজার কর্মীর বেতন বাড়তে চলেছে। স্বভাবতই এই ঘোষণাতে খুশি রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশ।

রাজ্যে বিদ্যুত্‍ দফতরের মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, বিদ্যুত্‍ দফতরের সমস্ত বিভাগের কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি করা হচ্ছে। চলতি বছর অর্থাত্‍ ২০২০ সালের ১ লা জানুয়ারি থেকে নয়া এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হতে চলেছে। মন্ত্রীর ঘোষণা মতো রাজ্যের বেতন কমিশনের নির্দেশ মেনেই কার্যকর করা হবে বিদ্যুত্‍ দফতরের কর্মীদের বেতন।

নয়া বেতন কমিশন অনুযায়ী, প্রতিটি কর্মীর বেসিক পে এবং ডিএ মিলিয়ে যে অংক দাঁড়াচ্ছে তার সঙ্গে ২.৫৭ গুণিতক হারে বেতন দেওয়া হবে বিদ্যুত্‍ দফতরের কর্মীদের।

যদিও রাজ্য সরকারি কর্মীদের একাংশের দাবি ছিল, বর্ধিত বেতন ২০১৬ সাল থেকে কার্যকর করার। চার বছরের বকেয়া এরিয়ার হিসাবে মেটানোর দাবি ছিল। কিন্তু রাজ্যের কোষাগার শূন্য। এই অবস্থায় এত আর্থিক দায়ভার নেওয়া সম্ভব নয়। আর সেই কারণেই সেই দাবি মানা হয়নি। বিদ্যুত্‍ দফতরেও চার বছরের বকেয়া কোনও টাকা কর্মীদের দেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিদ্যুত্‍ দফতরের মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

যদিও কর্মীদের সুবিধার্থে আরও একগুচ্ছ পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্যের বিদ্যুত্‍ দফতর। কর্মীদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত খাতে ভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে। মেডিক্যাল চেক-আপের জন্য ৪০ বছরের উর্ধ্বে থাকা কর্মীদের জন্য দেওয়া হবে ১৮০০ টাকা। একই সঙ্গে মেডিক্যাল সংক্রান্ত ভাতা দেওয়া হবে ৫০০ টাকা। এই টাকা পেনশন প্রাপকেরাও পাবেন। কর্মীদের বিদ্যুত্‍ পরিষেবা বাবদ দেওয়া ভাতার অংকও প্রতিটি বিভাগের ক্ষেত্রে বাড়ানো হয়েছে ৩০০ টাকা করে। ন্যূনতম পেশনন করা হয়েছে ৮৫০০ টাকা। যা আগে ছিল ৩৩০০ টাকা।