প্রকৃত ভালোবাসা, উত্তম কুমারের জন্য আজও অবিবাহিত অভিনেত্রী সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়

News Desk

April 1, 2021 | 3:05 PM
blog image

উত্তম কুমার। যিনি বাঙালির ইমোশন।ভারতীয় চলচ্চিত্রের বাংলা সিনেমার একজন কিংবদন্তী এবং সর্বশ্রেষ্ঠ মহানায়ক রূপে পূজিত হন সর্বত্র। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বাংলার প্রথম সুপারস্টার হলেন উত্তম কুমার। তবে বাঙালিদের কাছে হিন্দি ও অন্যান্য যেকোনো ভাষার সিনেমার থেকে আগে বাংলা সিনেমাই তাঁদের মনে আসে। কেননা বাংলা আমাদের মাতৃভাষা, আমাদের প্রত্যেকটি অঙ্গ জুড়ে রয়েছে বাংলা ভাষা। তাই বাংলা চলচ্চিত্র জগতের সবার আগে যার নাম আসে তিনি হলেন আমাদের সবার প্রিয় মহানায়ক উত্তমকুমার। তবে সেই সময়ে উত্তম-সুচিত্রা জুটি ছাড়াও মহানায়কের সঙ্গে একাধিক নায়িকার নাম জড়িয়েছিল। এছাড়া মূল নায়িকা ছাড়াও অনেক পার্শ্ব নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করতেন তাদেরও একসময় বলতে গেলে ক্রাশ ছিলেন উত্তমকুমার। এমনই তিনি একজন ব্যক্তিত্বের মানুষ ছিলেন যাকে না ভালোবেসে থাকা যায় না। তেমনই একজন অভিনেত্রীর নাম সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়।

কিন্তু জানেন কি, এই সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায় একসময় উত্তমকুমারের প্রেমে অন্ধ ছিলেন, কি পরিমান ভালোবেসেছিলেন তিনি মহানায়ককে। আজ সাবিত্রীদেবীর এই অজানা তথ্যই আপনাদের জানাবো। যার এককালে বন্ধুদের সঙ্গে খেলাধুলোর অবসরের সময়টা কেটেছিল ক্যামেরার সামনে। সংসারের অভাব অনটন তাঁকে বাধ্য করেছিল ছবিতে অভিনয় করতে। পরে পূর্ববঙ্গের সেই মেয়েটির অপূর্ব অভিনয়ই জয় করেছিল এ পারের চলচ্চিত্র মহল। সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ের মতো সহজাত, স্বচ্ছন্দ অভিনেত্রী বিরল বাংলা ছবির জগতে। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রয়াত শ্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় ৩১ শে মার্চ, ২০১৪ তারিখে নয়াদিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে একটি বেসামরিক বিনিয়োগ অনুষ্ঠানে শ্রীযুক্ত সবিত্রী চ্যাটার্জীকে পদ্মশ্রী পুরষ্কার প্রদান করেছিলেন।


ভিডিও


আরও পড়ুন :   ‘জন্মের আগেই সন্তানকে নিয়ে ব্যবসা’, নেটিজেনদের ট্রোলের শিকার অনুষ্কা শর্মা

২২ ফেব্রুয়ারি ১৯৩৭ সালে বাংলাদেশের কুমিল্লার কামালপুরে সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ের জন্ম হয়। তবে তার শৈশব কেটেছে কামালপুরেই। তাঁর বাবা শশধর চট্টোপাধ্যায়, পেশায় রেলের স্টেশনমাস্টার। ১০ ভাইবোনের মধ্যে সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়ই ছিলেন সবার ছোট। দেশভাগের পর তিনি এবং তাঁর আরেক বোন কলকাতায় চলে আসেন। ছিলেন টালিগঞ্জে এক দিদির বাড়িতে। কিন্তু তাঁর বাবা শশধর চট্টোপাধ্যায় পর্যাপ্ত টাকা পাঠাতে পারতেন না সেই সময়ে। টাকার অভাবে খুব কষ্টে কাটছিল ১০ বছর বয়সী ছোট্ট মেয়েটার জীবন। এমনকি এও জানা গিয়েছিল, যে ভালো খাবারে জন্য কখনও কখনো আত্মীয়দের বাড়ি চলে যেতেন।

আরও পড়ুন :   হাসি-খুশি পুচকে ছেলের মন খারাপ, মা শুভশ্রীকে কাছে না পেয়ে, ইউভান মাকে খুজে বেরাচ্ছে

তারপরেই শুরু হয় তাঁর অভিনয় জীবন।একপ্রকার খাদ্যাভাব ও ছোটবেলা থেকে সিনেমার প্রতি আকর্ষণই তাঁকে টেনে নিয়ে যায় সিনেমা জগতে। উত্তম কুমার থেকে শুরু করে বহু বড় বড় তারকার সঙ্গে অভিনয় করেছেন সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়। তবে তাঁর অভিনয়ের শুরুটা হয়েছিল নাটক দিয়েই। সেই সময় ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর নতুন নাটক ‘নতুন ইহুদি’ র জন্য একজন নতুন মুখ খুজছিলেন, ঠিক সেই সময়ে কপালের জোরে ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়ের পছন্দ হয়ে যায় সাবিত্রীকে, এরপর ‘নতুন ইহুদি’ নামের নাটক দিয়েই শুরু হল অভিনয়ের পথে পথ চলার। তারপরেই সাবিত্রীদেবীর ধীরে ধীরে শুরু হয় অভিনয় জীবন। ছোট্ট পর্দা থেকে বড় পর্দায় কাজ করতে শুরু করেন তিনি, সহযাত্রী’ ছবি দিয়ে হাতে খড়ি হয় তাঁর রুপোলি পর্দায়। ছবিতে মহানায়ক উত্তমকুমারের সঙ্গে পার্শ্ব নায়িকার চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পেয়ে যায় সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়। এরপর ‘রাতভোর’, ‘নিশিপদ্ম’. ‘ধন্যি মেয়ে’ ইত্যাদি ছবিতে মহানায়কের পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।

এরপর ধীরে ধীরে মহানায়ক উত্তম কুমারকে অভিনেত্রী সাবিত্রী ভালোবেসে ফেলেন, একথা নিজেই স্বীকার করেছেন সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়। এক বেসরকারী সংবাদ মাধ্যমের কাছে তিনি বলেছিলেন, ‘প্রেম খানিকটা ছিল, তবে বেশির ভাগটাই রটনা’। আসলে সেই সময়ে রটে গিয়েছিল যে মহানায়ক উত্তমকুমার সাবিত্রীকে বিয়ে করে বালিগঞ্জে ভাড়া ছিলেন। কিন্তু এটি সবটাই কাল্পনিক।

আরও পড়ুন :   ক্যামেরা দেখেই বকবক শুরু করলো ইউভান, একরত্তি ছেলের ভিডিও শেয়ার করলেন রাজ চক্রবর্তী

 

এরপর অভিনেত্রী জানান, “অভিনেত্রীর বিয়ে বহুবার ভেঙে দিয়েছিলেন মহানায়ক, কিন্তু কেন তা জানা নেই তবে কিছুটা পজেসিভনেস তো ছিলই সাবিত্রীর প্রতি উত্তমকুমারের।” তবে উত্তম কুমারের সঙ্গে গৌরীদেবীর কি কারণে সংসার ভেঙে যায় তা স্পষ্ট নয়, সবার মত সাবিত্রীও বড় কষ্ট পেয়েছিলেন তখন। তাঁর মনে তখন মহানায়কের প্রতি ভালোবাসাটা গাঢ় হচ্ছিল। তাই তো আশির দশকে যখন মহানায়ক মারা গেলে তখন একেবারেই ভেঙে পড়েছিলেন অভিনেত্রী। তখনই বড় পর্দার থেকে সরে আসেন সাবিত্রী, তবে একথা সত্যি যে সাবিত্রী বিয়ে করেননি, এর কারণ উত্তমকুমার কিনা তা জানা নেই। তবে বর্তমানে বড় পর্দার পাশাপাশি ছোটো পর্দায় চুটিয়ে অভিনয় করে গিয়েছেন এই বর্ষীয়ান অভিনেত্রী। কিন্তু আজ আর শরীরের অবস্থার জন্য ফিল্ম জগত থেকে দূরে রয়েছেন তিনি।


আরও পড়ুন

ফের টিভির পর্দায় ফিরছে সুশান্ত-অঙ্কিতার পুরোনো প্রেম, অপেক্ষার প্রহর গুনছে ভক্তরা

‘বিয়েটাকে কলঙ্কিত করলে সহ্য করব না’, যশ-নুসরতের প্রেমের গুঞ্জনের মাঝে মুখ খুললেন নিখিল

এবার ঋদ্ধির সঙ্গে জুটি বাঁধছেন শুভশ্রী গাঙ্গুলি, প্রকাশ্যে এল ছবি

সুশান্ত সিং রাজপুত খুন হয়েছেন? প্রয়াত অভিনেতার ভিসেরা রিপোর্টে মিলল বিস্ফোরক তথ্য

সুশান্ত মৃত্যুকান্ডে নয়া মোড়! AIIMS – এর ভিসেরা রিপোর্টে মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য

অভিনয় থেকে রাজনীতির মঞ্চ সমস্ত বাঁধা টপকে একচ্ছত্র দাপিয়ে বেড়িয়েছেন ‘বাংলার মেয়ে’ জয়া বচ্চন

সাদামাটা গৃহিণী রূপসার অভিনয় জীবন দারুন হয়ে ওঠার যাত্রা সিনেমার গল্পকেও পেছনে ফেলবে