মায়ের সঙ্গে ঠাকুমার সাপে-নেউলের সম্পর্ক, শর্মিলা ঠাকুরকে নিয়ে মুখ খুললেন সারা আলি খান

একজন বিখ্যাত ভারতীয় বাঙালি অভিনেত্রী হিসেবে শর্মিলা ঠাকুরকে কেইনা চেনে। তাঁর তিখি নজরে এমনকি মায়া ভরা রূপে যে আজও কত পুরুষ পাগল তাঁর কোন ইয়াত্তা নেই। সত্যজিৎ রায় পরিচালিত অপুর সংসার ছবি দিয়ে তাঁর অভিনয় জীবনের শুরু হয়। এরপর তাঁর একের পর এক অভিনয় নজর কাড়ে সকল দর্শকদের।

শর্মিলা ঠাকুর হলেন বিখ্যাত ক্রিকেটার মনসুর আলী খান পাতদির স্ত্রী। তাঁর ছেলে সইফ আলী খান হলেন হিন্দি চলচ্চিত্র জগতের একজন নামকরা অভিনেতা এবং তার মেয়ে সোয়া আলী খানও হিন্দি চলচিত্রের একজন অভিনেত্রী। আর সেই সূত্র ধরেই সারা আলী খান, ইব্রাহিম, তৈমুর আলী খানের ঠাকুমা তিনি এবং ইনায়ার দিদা তিনি।

আর তাই বোঝাই যায় যে, নাতি নাতনি নিয়ে তার ব্যাপারই আলাদা। তাঁদের সঙ্গে বেশ ভালো মিষ্টি সম্পর্ক রয়েছে এই কিংবদন্তি অভিনেত্রীর। আর এবার নিজের ঠাম্মাকে নিয়েই মুখ খুললেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী তথা সইফ আলী খানের আগের পক্ষের মেয়ে সারা আলী খান। সারা বলেন যে, শর্মিলা ঠাকুরকে তিনি নিজের জীবনে ঠাম্মা হিসেবে পেয়ে তিনি অভিভূত। এমনকি সারা তার ঠাম্মার বিরাট বড় ফ্যান।

তবে, এও জানা যায় যে, সইফ আলী খানের আগের পক্ষের স্ত্রী অর্থাৎ সারা আলী খানের মা অমৃতা সিং এর সঙ্গে শাশুড়ি অর্থাৎ শর্মিলা ঠাকুরের খুব একটা ভালো সম্পর্ক ছিলনা। জানা যায় যে, দুজনের কেউই নাকি একে অপরকে সহ্য করতে পারতো না। তবে, পরবর্তীকালে সইফ ও অমৃতার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার ফলে সেই নিয়ে আর বেশি জলঘোলা হয়নি। তবে, অন্যদিকে সারা কিন্তু তৈমুরকে বেশ ভালোবাসে। আপাতত সইফ কন্যা তথা শর্মিলা নাতনি একের পর এক ছবি দিয়ে বলিউডে পাকাপাকি ভাবে জায়গা করে নিচ্ছে। সম্প্রতি সারার এই কথাই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।