মুখ ঢেকে হাঁচি না দেওয়ায় গণপিটুনির শিকার ব্যক্তি

বিশ্বজুড়ে দ্রুত ছড়াচ্ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। তবে তার চেয়েও দ্রুত ছড়াচ্ছে আতঙ্ক। এই আতঙ্ক থেকেই জনসম্মুখে মুখ না ঢেকে হাঁচি দেওয়ায় গণপিটুনি খেয়েছেন এক ব্যক্তি। বৃহস্পতিবার মহারাষ্ট্রে ঘটেছে এই ঘটনা।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, রাজ্যের কোলাপুর শহরের গুজারিয়া এলাকার রাস্তায় মোটরসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন এক ব্যক্তি। এ অবস্থায় সময় হাঁচি দিলে তার পথ আটকান আরেক মোটরসাইকেলচালক। কারণ, ওই ব্যক্তি মুখে হাত না দিয়েই হাঁচি দিয়েছিলেন।

[আরও পড়ুনঃঅবশেষে ফাঁসি হল নির্ভয়ার চার ধর্ষক-হত্যাকারীর]

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, মানুষের হাঁচি, কাশি, বা নিঃশ্বাসের মাধ্যমে সহজেই একজন থেকে আরেকজনের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস। দ্বিতীয় ব্যক্তি ওই লোকের কাছে এ বিষয়েই হয়তো জানতে চাচ্ছিলেন।

কিন্তু এ নিয়ে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন তারা। এসময় সেখানে উপস্থিত হন আরও কিছু লোক। পরে সবাই মিলে হাঁচি দেওয়া ওই ব্যক্তিকে গণপিটুনি দেন। সিসি ক্যামেরার ফুটেজে ধরা পড়েছে এই ঘটনা। ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করেননি। তবে হাঁচি দেওয়া ব্যক্তিরই সমালোচনা করেছেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ। এক ট্যুইটে তিনি বলেন, যারা নিয়ম ভেঙে নিজেদের পাশাপাশি পাশের মানুষদেরও বিপদে ফেলছে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত্‍ পুলিশের।

দেশে এ পর্যন্ত ১৯৪ জনের শরীরে ধরা পড়েছে নভেল করোনাভাইরাস, মারা গেছেন চারজন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন, প্রাণ হারিয়েছেন একজন।

করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত মহারাষ্ট্রই। রাজ্যটিতে অন্তত ৪৯ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে, মারা গেছেন একজন।