যাকে স্যার বলেছিলেন, ‘জীবনে তোর কিচ্ছু হবে না’, আজ সেই ছাত্র অস্ট্রেলিয়ায় ১০ কোটির মালিক

News Desk

June 19, 2021 | 1:13 AM
blog image

কথায় আছে কঠিন পরিশ্রমের মাধ্যমে জীবনে যত বাধা আসুক না কেন যদি নিজের লক্ষ্য ঠিক থাকে তাহলে সে জীবনে সফলতা পাবেই। সকলেরই কিছু না কিছু নির্দিষ্ট লক্ষ্য থাকে। সকলই ভাবে নিজের ভবিষ্যৎকে উজ্জ্বল করবে, বাবা মায়ের সম্মান রাখবে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে অনেক বাঁধা এসে যায়। পিছনে অনেকে অনেক রকম কথা বলতে থাকে কিন্তু এসব কিছু কথা পরোয়া না করে জীবনে লক্ষ্য স্থির থাকলে যে সফল হওয়া যায় তা অনেকেই প্রমাণ করে দেখিয়েছেন।

আরও পড়ুন :   গরীব তরুনীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা পড়ল ১০ কোটি টাকা, হতবাক গোটা পরিবার

আজ আপনাদের কাছে এমন একজন মানুষের কথা বলব যা সকলের কাছে অনুপ্রেরণা। আসলে স্বপ্ন থাকলেও এখনকার দিনে মানুষের কাছে যদি টাকা না থাকে তাহলে অনেক কিছুই স্বপ্ন হয়ে থাকে। তবে ইচ্ছে শক্তি ও কঠোর মানসিকতা থাকে তাহলে সেই বাধা অতিক্রম করা যায়। সেই ছেলেটির নাম আমির কুতুব বাড়ি উত্তরপ্রদেশের আলীগড়ে। গরিব পরিবারে জন্মগ্রহণ করলেও তার বাবা চাইতেন ছেলে পড়াশোনা করে মানুষ হোক। কিন্তু দ্বাদশ শ্রেণী পাস করে যখন কলেজে ভর্তি হন তার পড়াশোনার ভঙ্গি দেখে এক শিক্ষক বলেছিলেন সে জীবনে কিছু করতে পারবে না।

আরও পড়ুন :   ভারতে পাওয়া গেল বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভূ-গর্ভস্থ মাছ

বিটেক শেষ হওয়ার পর পারিবারিক চাপে তিনি একটি চাকরিতে জয়েন করেন কিন্তু কিছুদিন পর তাকে সেই চাকরি ছেড়ে দিতে হয় তারপর তিনি ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ শুরু করেছিলেন গ্রাফিক ডিজাইন এ পারদর্শী কুতুব অনেক লাইন ছিল অস্ট্রেলিয়ার। তার এই সুন্দর কাজ থেকে এক লাইন তাকে নিয়ে একটি ব্যবসা খোলাতে চেয়ে ছিলেন যার জন্য অস্ট্রেলিয়ায় আসতে অনুরোধ করেছিলেন আমির কুতুবকে।

আরও পড়ুন :   দুর্দান্ত ভঙ্গিমায় হিন্দি গানে নাচ করে নেটিজেনদের মুগ্ধ করলেন পান্তা ভাতের কুন্ডু, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

এরপর আমির তার কথা শুনে মুগ্ধ হয়ে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার জন্য অনেক কষ্ট করে ভিসা জোগাড় করেন, আর অস্ট্রেলিয়ায় নিজের যোগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে, আজ তিনি সেখানকার একজন বড় বিজনেসম্যান। বর্তমানে আমিরের বার্ষিক টার্নওভার ১০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। অপেক্ষাকৃত গরিব পরিবার থেকে কঠিন লড়াইয়ে হার না-মেনে নিজের স্বপ্নকে পূরণ করার যে মানসিকতা আমির দেখিয়েছেন তা সকলের কাছে অনুপ্রেরনা।