সিনেমার স্ক্রিপ্ট পছন্দ না হওয়ায় অফার ফিরিয়ে দেন কঙ্গনা, সেই ছবিতেই বাজিমাত করেন বিদ্যা বালান

২০১১ সালে মুক্তি পেয়েছিল বিদ্যা বালান অভিনীত ছবি ‘দ্য ডার্টি পিকচ্যার’। ছবিতে সিল্ক স্মিতার চরিত্রে অভিনয় করে দর্শক সহ সমালোচকদের মন জয় করে নিয়েছিলেন বিদ্যা। একাধিকবার বিদ্যা বালান ডার্টি পিকচ্যার কে তার অভিনয় জীবনের মোড় ঘোরানো ছবি বলে চিহ্নিত করেছেন। এই ছবির জন্য জাতীয় পুরস্কার, ফিল্মফেয়ার সহ একাধিক পুরস্কার জিতে নিয়েছিলেন বিদ্যা।

কিন্তু জানেন কি, এই ছবিতে বিদ্যা বালানের জায়গায় প্রথমে অফার দেওয়া হয়েছিল কঙ্গনা রানাওয়াত কে! সিল্ক স্মিতার চরিত্রের জন্য বিদ্যা মোটেই প্ৰথম পছন্দ ছিলেন না। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে একথা জানিয়েছেন কঙ্গনা। কঙ্গনা দাবি করেছেন, ডার্টি পিকচ্যার ছবির নির্মাতারা প্রথমে তাঁকে অফার করেছিল সিল্ক স্মিতার চরিত্রে। কিন্তু ছবির চিত্রনাট্য পড়ে বিশেষ ভালো লাগেনি কঙ্গনার। সেই কারণে তিনি ছবিতে অভিনয় করার প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন। হাত ঘুরে সেটি যায় বিদ্যা বালানের হাতে।

তবে সুপারহিট এই ছবিটি ছাড়ার পরও কঙ্গনার কোনো আপসোস হয়নি বলেই জানিয়েছেন অভিনেত্রী। সাক্ষাৎকারে ছবি এবং বিদ্যা বালানের অভিনয়ের প্রশংসা করেছেন তিনি। ২০১১ সালে মিলন লুথারিয়া পরিচালিত এই ছবিটি রিলিজ হওয়ার পর সুপারহিট হয়। ছবিতে বিদ্যা বালানের পাশাপাশি অভিনয় করেছিলেন নাসিরউদ্দিন শাহ, ইমরান হাশমি প্রমুখরা। ছকভাঙা অভিনয় করে সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন বিদ্যা বালান। বলা যায় ডার্টি পিকচারের পরই বলিউডে নিজের জায়গা পাকা করে ফেলেন বিদ্যা।

যদিও এই ছবিটি না করলেও অনেক হিট ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন কঙ্গনা। ২০০৬ সালে গ্যাংস্টার ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন কঙ্গনা। এরপর একের পর এক বলিউডের হিট ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। কুইন, তনু ওয়েডস মনু, তনু ওয়েডস মনু রিটার্নস, পাঙ্গা এর মতো ছবি উপহার দিয়েছেন দর্শকদের।