সুশান্ত মামলাঃ ভাই সৌভিককে নিয়ে এনসিবির অফিসে অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীকে

গত ১৪ই জুন বান্দ্রার বাড়িতে আত্মহত্যা করেছেন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত(Sushant Shingh Rajput)। তবে তার মৃত্যুর পর থেকে উঠে এসেছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। সুশান্তের অনুগামী, পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের মতে আত্মহত্যা নয় বরং পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে তাকে। শুধু তাই নয় যেই কারণে প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীকে(Rhea Chakraborty)ও আনা হয় অভিযোগের কেন্দ্রবিন্দুতে।

তার বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনা, আর্থিক তছরুপ ও প্রতারণার অভিযোগে মামলা দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। একইসাথে তাতে যোগ হয় মাদক চক্র। সুশান্তকে মাদক দেওয়ার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। এক মাস বাইকুল্লা জেলে কাটানোর পর জামিন পান তিনি। তবে তাকে শর্ত দেওয়া হয় প্রতি মাসের সোমবার হাজিরা দিতে হবে এনসিবি দপ্তরে।

টানা ৬ মাস এই নিয়ম মানতে হবে তাকে। সেই মতোই তাকে সোমবার হাজিরা দিতে দেখা গেল এনসিবি দপ্তরে। তবে তিনি একা নন তার সাথে ছিলেন ভাই সৌভিক(Souvik Chakraborty) চক্রবর্তীও। সাদা-কালো কুর্তা ও মাস্ক পরিহিত অবস্থায় এনসিবি দপ্তরে হাজির হয়েছিলেন তিনি। তাকে দেখা মাত্রই ঝলসে ওঠে চিত্র সাংবাদিকদের ক্যামেরার ফ্ল্যাশ। যদিও তাদের প্রতি কোনো মন্তব্য করেননি তিনি।

উল্লেখযোগ্য, সুশান্ত আত্মহত্যা কান্ডে মাদক চক্র যোগ হওয়ার পর একাধিক বলিউড তারকার নাম ওঠে। যেই তালিকায় ছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন, সারা আলি খান ও রকুলপ্রীত। ইতিমধ্যেই তাদের জেরা করেছে এনসিবি আধিকারিকরা। যদিও তারা জানিয়েছেন সুশান্ত মাদক নিলেও ওই অভিনেত্রীরা কখনও মাদক সেবন করেননি।