“সুশান্ত মামলা”আত্মহত্যা না কি খুন? অনিল দেশমুখের প্রশ্নের স্পষ্ট জবাব দিল CBI

গত ১৪ই জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাটে উদ্ধার হয় বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত দেহ। এই ঘটনায় গোটা দেশ জুড়ে হইহই কান্ড পড়ে যায়। সকলেই স্তম্ভিত হয়ে যান তরুণ অভিনেতার মৃত্যুতে। আর এরপর সামাজিক মাধ্যম থেকে বিভিন্ন স্তরের মানুষ প্রতিবাদে সামিল হন অভিনেতার মৃত্যুর তদন্ত করতে এবং অভিনেতার মৃত্যুতে কারা দোষী তা খুঁজে বের করতে। ২০২০ সালটি গোটা বিনোদন জগতের জন্য একটি দুর্ভাগ্যজনক সাল। বিনোদন জগতে একের পর এক মানুষ হারিয়ে যাচ্ছেন না ফেরার দেশে।

কেউ আত্মঘাতী তো কেউ করোনায় মারা যাচ্ছেন। আর একের পর এক মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন গোটা দেশের মানুষ। কিন্তু এতদিন হয়ে গেলেও অভিনেতা সুশান্তের মৃত্যুর কোনোরকম মন্তব্য প্রকাশ করেনি সিবিআই। আদেও এটি খুন নাকি আত্মহত্যা তা স্পষ্ট করে জানায়নি সিবিআই।কিছুদিন আগে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ সিবিআই তদন্তের গতিপ্রকৃতি জানতে চেয়েছিলেন। আপাতত দেশের তিনটি কেন্দ্রীয় সংস্থা সুশান্ত মৃত্যু মামলা ও তার সঙ্গে জড়িত অপর দুই মামলার তদন্তের দায়িত্বে রয়েছে।

অভিনেতার মৃত্যুর তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই। গত আগস্ট মাসে দেশের সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশ অনুসারে সিবিআই-এর হাতে মামলা তুলে দেওয়া হয়। কিন্তু সিবিআই স্পষ্টত এখনও কিছু না জানানোয় মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ তরুণ অভিনেতার মৃত্যু কীভাবে হয়েছে তা জানতে চেয়েছিলেন। সিবিআই-এর হাতে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তের ভার রয়েছে আজ কয়েক মাস অতিক্রম।

কিন্তু এখনও সিবিআই স্পষ্টত কিছু জানায়নি। এদিকে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের প্রশ্নের জবাবে সিবিআই জানিয়েছে, পেশাদারিভাবে সাম্প্রতিক বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির সাহায্যে অভিনেতার মৃত্যুর তদন্ত চলছে। তদন্তে সমস্ত দিকই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কোনো দিকই খারিজ করে দেওয়া হচ্ছে না।