হাসপাতালের বেডে শুয়ে গৌরী, স্ত্রীকে মৃত্যুর মুখে দেখে হতাশ হয়ে পড়েন শাহরুখ

বলিউডের বাদশা যাকে সবাই ভালোবাসে সেও ভয় পায় মৃত্যুকে। নিজের মৃত্যুভয় না, প্রাণের চেয়েও প্রিয় স্ত্রীকে হারানোর ভয় পান শাহরুখ। অভিনেতা এবং তাঁর স্ত্রীর সম্পর্ক যে কতটা মজবুত তা নিয়ে বহুবার বহু মঞ্চে কথা বলতে দেখা গেছে শাহরুখকে।

অভিনেতা বলেন যখন তাঁদের বিয়ে হয়, স্ত্রী গৌরীকে হানিমুনে নিয়ে যাওয়ার মত সামর্থ্যও ছিল না তাঁর। অনেক ওঠা নামা এসেছে জীবনে এবং সম্পর্কেও। গৌরী সবসময় তাঁর পাশে থেকেছেন তাঁর শক্তি হয়ে।

তাই স্ত্রীকে মৃত্যুশয্যায় দেখে অত্যন্ত ভেঙে পড়েন শাহরুখ। আসলে গৌরীর কখনোই সেভাবে কোনো ভারী অসুখ করেনি। তাই গৌরী শুয়ে থাকতে দেখে হতাশ হয়ে যান তিনি।

ঘটনাটা আরিয়ান হওয়ার সময়। এর আগে গৌরীর একবার মিসক্যারেজ হয়। তাই আরো বেশি চিন্তিত হয়ে পড়েন অভিনেতা স্ত্রীর বিষয়ে। হাসপাতাল একদম পছন্দ করেন না শাহরুখ। কারণ এই হাসপাতাল কেড়ে নিয়েছে তাঁর বাবাকে।

মাত্র ১৫ বছর বয়সেই তিনি হয়ে জন পিতৃহীন। অনেক স্ট্রাগল করে আজ এই জায়গায় পৌঁছেছেন। পরিবারের দায়িত্বও পালন করে গেছেন সমানে। কেরিয়ারে স্ত্রী গৌরী খানকে সবসময় পাশে পেয়েছেন। তাই তাঁর মৃত্যুর কথা ভাবলেও ভয়ে কেঁপে উঠেন। তবে সেই সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসে গৌরী। সুহানার জন্মের সময় আরো স্বাভাবিক হয়ে যান গৌরী।