স্বামীকে খুন করে প্রমান লোপাটের চেষ্টা, ২২ মাস পর স্ত্রীকে কঠোর সাজা দিলো আদালত

২০১৮ সালে নিউটাউনের ফ্ল্যাটে খুন হয়েছিলেন আইনজীবী রজত দে। দীর্ঘ ২২ মাস পর অবশেষে সেই খুনের মামলার সাজা ঘোষণা হলেও আজ বুধবার। সোমবার আগেই খুনের মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন তার স্ত্রী অনিন্দিতা। শুধু তাই নয়, এর পাশাপাশি ষড়যন্ত্র করে খুন এবং প্রমাণ লোপাটের মত অভিযোগ পুলিশের তরফ থেকে করা হয়েছে।

বুধবার সেই মামলার সাজা ঘোষণা হল। এদিন বারাসত আদালতে অনিন্দিতাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এমনকি দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ছ’মাস জেল এবং দু’হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত। সাজা ঘোষণার পর কার্যত কান্নায় ভেঙে পড়েন অনিন্দিতা।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ২৫ নভেম্বর নিউটনের ডিবি ব্লকের একটি ফ্ল্যাটের ভেতর থেকে আইনজীবী রজত দে-র দেহ উদ্ধার হয় । সরকারি হাসপাতলে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। এরপরই খুনের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়। বিধাননগর পুলিস তদন্ত শুরু করে। এমনকি ওই বছরেই ডিসেম্বর মাসে রজত দে-র স্ত্রী অনিন্দিতাকে গ্রেফতার করে পুলিস। বারাসত কোর্টে মামলা শুরু হয়। মামলার তদন্তে একাধিক রহস্য উঠে আসে। পুলিসের দাবি করে, তদন্তের সময় অনিন্দিতার বয়ানে অসঙ্গতি ছিল। পরে খুনের কথা কবুল করেন তিনি। অবশেষে সাজাও পেলেন তিনি।