ঐন্দ্রিলাকে চিকিৎসার খরচ দিচ্ছেন মমতা-মিঠুন! রটনায় বিরক্ত পর্দার ‘বামাক্ষ্যাপা’ সব্যসাচী চৌধুরী

62

ঘটনা ও রটনা একসঙ্গেই চলে। কেউ ঘটনা পরিবেশন করেন, কেউ রটনা আবার কেউ কেউ ঘটনা ও রটনা দুই পাঞ্চ করে পরিবেশন করেন। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে যার যেটা ইচ্ছা করতে পারেন এবং বলতে পারেন। সোশ্যাল মিডিয়া এতটাই ওপেন প্ল্যাটফর্ম যেখানে যে কেউ এসে যা কিছু বলতে বা করতে পারে। ঠিক এরকমই একটা রটনায় বিরক্ত হলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলার প্রেমিক, পর্দার বামাক্ষ্যাপা ওরফে সব্যসাচী চৌধুরী।

আরও পড়ুন:   প্রকাশ্য রাস্তায় অরিজিৎ সিং-এর সুপার হিট গান গেয়ে ভাইরাল সকলের প্রিয় মিঠাই, রইল ভিডিও

অসুস্থ ঐন্দ্রিলা আপাতত ঘরেই রয়েছেন। শরীর খুবই দুর্বল। মায়ের সাহায্য নিয়েই সব কাজ করছেন। নিজের মতন সারাক্ষণ ফোন ইন্টারনেট নিয়েই থাকেন ঐন্দ্রিলা। একদিন ঐন্দ্রিলা নাকি সব্যসাচীকে নিজে দেখিয়েছেন, “এই দ্যাখো, মিঠুন চক্রবর্তী নাকি আমার ট্রিটমেন্ট করাচ্ছেন!” পরের দিনেই বদলে গিয়েছে সেই খবর। তাই নিয়ে অভিনেত্রীর কপট আক্ষেপ, “যাহ্‌, আজ মিঠুনদা নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমার চিকিৎসার খরচ দিচ্ছেন!”

আরও পড়ুন:   আর বিয়ে করা হলনা, একসঙ্গে থাকার কথা ভেবেছিলেন সিদ্ধার্থ-শেহনাজ!

ইউটিউবে প্রচারিত হচ্ছে, কখনো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অথবা কখনো মিঠুন চক্রবর্তী তাকে আর্থিক সাহায্য করছেন অসুস্থতার ব্যাপারে। তার চিকিৎসার যাবতীয় খরচ নাকি তারাই করছেন। এমন রটনায় বিরক্ত হন সব্যসাচী।

এদিন সব্যসাচী একটি দীর্ঘ পোস্ট করেন। তিনি জানান ঐন্দ্রিলার দ্বিতীয় বার ক্যান্সার ধরার পর লম্বা চিকিৎসা চলে এবং তার শ্বেত রক্তকণিকার পরিমাণ খুবই কম হয়, ফলে শরীর দূর্বল হয়ে যায়। এছাড়াও তিনি এও বলেন, জুলাই মাসটা খুবই সংকটের মধ্যে দিয়ে কেটেছে ঐন্দ্রিলার। এক মাসে ২৫টি রেডিয়েশন নিয়েছেন তিনি। শুক্রবার ছিল রেডিয়েশনের শেষ দিন। এর পাশাপাশি চলে কেমোথেরাপি। এরই মধ্যে এমন অবাস্তব খবর খুবই নিন্দনীয়। ঐন্দ্রিলার থেকে ফোন নিয়ে নিয়ে চাইলে ঐন্দ্রিলা নাকি আবদারের সুরে বলেন, “আমি তো ক্যান্সার পেশেন্ট, অপারেশনের রুগী”.