Homeবিনোদন‘এ মেয়ের ঢং দেখলে বাঁচি না’, তুমুল ট্রোলের মুখে অপু

‘এ মেয়ের ঢং দেখলে বাঁচি না’, তুমুল ট্রোলের মুখে অপু

আন্টি-টু এর ষড়যন্ত্রে প্রাণ যায় যায়। বহুবার আন্টি-টু বিভিন্ন কাজে নাক গলিয়ে পরিস্থিতি জটিল করে তুলেছে। এমনকি দীপু অ্যাসিস্ট্যান্টের সঙ্গে যাতে বিয়ে না হয় সেই জন্যেও প্রচুর ফন্দি আটে আন্টি-টু আর তার বেকার ছেলে নীলু।

এবারে সপরিবারে ঘুরতে এসেছে অপুর শ্বশুর বাড়ির সবাই গ্রামের রাজ বাড়িতে। পৈতৃক ভিটে বলে কথা। এখানে সপরিবারে এসেই বাঁধে একটার পর এক গোল। প্রথমেই দেখা যায় অপুর জামাই বাবু তার প্রেমিকাকে নিয়ে এসেছে, এরপর যায় বিগ্রহের গয়না চুরি। অপু যদিও সব ক্যামেরা বন্দি করে নীলুকে এক হাত নেয়। এদিকে আন্টি- টু কি ছেড়ে দেওয়ার পাত্রী? তার ছেলের অপমান সহ্য হওয়ার নয়। এর আগেও অপু ওর নকল অ্যাডমিট কার্ড নিয়ে আন্টি টু কে হাতে নাতে ধরেও ক্ষমা করে দেয় আর মায়ের থেকে মাসির দরদ বেশি বলে একটি ঘরোয়া অনুষ্ঠান করে। কিন্তু, তাতেও এই মাসি শাশুড়ির শিক্ষা হয়নি।

শেষে কিনা ফন্দি আঁটে এই অপু সাঁতার জানে না, সুতরাং একে বাড়ির পুকুরে ধাক্কা দেওয়া হবে। নীলু কাজটি করে। অপু জলে হাবুডুবু খায়। দীপু এসে বাঁচায়, গল্প এগোতে থাকে। এদিকে নেট জনতা অপুর এই জলে হাবুডুবু খাওয়া নিয়ে বেজায় রসিকতা করে। বেশিরভাগ দর্শক সেদিনের সিন দেখে হাসিতে লুটোপুটি খান। জলের সিড়ির সামনে বসে অপু অভিনয় করছে যে সে যেন একগলা জলে ডুবে গিয়েছে। ডিরেক্টর যে কত কষ্ট করে শ্যুট করেছেন তা ব্রহ্মা জানেন। এই নিয়ে মজাদার মিম পর্যন্ত তৈরি হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রসঙ্গত, গল্পের এই অপু হলেন আসানসোলের মেয়ে। মডেলিং দিয়ে পথচলা শুরু তার। আজ তিনি ‘অপরাজিতা’। একটা সময় ব্রাইডাল মেক আপ ও গয়নার ছোট খাটো মডেলিং এর জন্য পরিচিত মুখ ছিলেন। হঠাৎই এমন মেগা ধারাবাহিকে সুযোগ। তার আসল নাম সুস্মিতা দে। অভিনেতা দেব তার খুব পছন্দের মানুষ। একটা সময় নাকি দেবের নাচ গান টিভিতে দেখে পরীক্ষা দিতে যেতেন। এই আসানসোলের মেয়ে এখন টেলি পাড়ার নিত্য যাত্রী। এবার অভিনয় নিয়ে নেটিজেনদের কটাক্ষের শিকার হলেন অপু।

MOST POPULAR ARTICLES