ভাইরালঅফবিট

অসাধারণ কন্ঠস্বর, চায়ের দোকান থেকে বলিউডে গান রেকর্ডিং বাঙালি গৃহবধুর, ভাইরাল ভিডিও

এর আগে আমরা বহুবার দেখেছি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে সাফল্যের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেছে। এবারও ঠিক এমনই এক ঘটনা ঘটতে দেখা গেল। ভাইরাল হয়ে রেকর্ডিং স্টুডিও অব্দি পৌঁছে যায় বিপাশা দি। বিপাশা দি পেশায় একজন চা বিক্রেতা তাঁর কাছে গান গাওয়াটা বিলাসিতা ছাড়া আর কিছুই না। তবে তার এই বিলাসিতাই প্রশংসা করেছেন কুমার শানু।

তার বাবা খুবই দরিদ্র হওয়ায় তাকে কোনদিনই গান শেখাতে পারেন নি। তবে দারিদ্রতা তাঁকে দমিয়ে রাখতে পারেনি। চাকদা অঞ্চলে বসবাসকারী বিপাশা দি অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়েছে। তিনি আবারও প্রমাণ করেছেন যে মনের জোর থাকলেই সব অসম্ভব কে সম্ভব করা যায়।

নেটিজেনরা তার খালি গলায় গান শুনে মুগ্ধ হয়ে যায়। কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তার গাওয়া গানটি ভাইরাল হয়। তিনি সোশ্যাল মিডিয়া মাতিয়ে তুলেছিলেন নানা কিংবদন্তির গানে, গানগুলো হলো ‘এ মেরে বতন কে লোগো’, ‘কি লিখি তোমায় প্রিয়তম’, ‘দিল টুটে’।

তাঁর ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে কমেন্ট উপচে পড়ছে। হাজার হাজার মানুষের শেয়ারের মাধ্যমে লক্ষ্য লক্ষ্য মানুষের কাছে তাঁর গানটি পৌঁছে যায়।

এক নতুন জীবন শুরু হয় এই বিপাশা দাসের। তাঁর পাশে এসে দাঁড়িয়েছে ‘ইন্ডিয়ান মিক্সড ভিডিওস’ নামের একটি সংস্থা। ইতিমধ্যেই তিনি গান করার সুযোগ পেয়েছেন কুমার শানুর সঙ্গে।

কুমার শানুকে তাঁর গানের প্রশংসা করতে দেখা যায়। এ ধরনের প্রতিভা খুবই বিরল বললেন কুমার শানু। কুমার শানু সোশ্যাল মিডিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কারণ সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এ ধরনের প্রতিভা সকলের সামনে উঠে আসতে পেরেছে।

বিপাশা দি বিশ্ব দরবারে পৌঁছে গেছেন সকলের ভালোবাসার কারণে। তবে আজও সুযোগের সোশ্যাল মিডিয়ায় বিপাশা দির প্রশংসা করেন। আমরা সকলেই আশা করছি বিপাশা দিদির নতুন জীবন খুবই মধুময় হোক।

Related Articles

Back to top button