অফবিট

১টা-২ টো বিয়ে নয়, করেছেন ১১টি বিয়ে, সম্পত্তি হাতাতে এই মডেল স্বামী বদলাতেন!

স্বামী বদল করা তার বা হাতের খেলা। আর সেই কারণেই ইচ্ছেমতো বিয়ে করেছেন তিনি। তবে কোন বিয়েই আইনি বিয়ে হত না। শুধুমাত্র সম্পত্তি হাতাতে তিনি পাইকারি হারে বিয়ে করতেন। ১-২ বার নয় ইতিমধ্যে তিনি ১১ বার বিয়ে করে ফেলেছেন। কিন্তু এই মধু খাওয়া বেশিদিন স্থায়ী হয় নি, অবশেষে তাকে পুলিশের ফাঁদে পড়তে হয়।

আটক মহিলা মডেলের নাম মরিয়ম আক্তার মৌ। তিনি বিয়ে করে স্বামীর কাছ থেকে সম্পত্তি কেড়ে নিয়ে ছেড়ে দিতেন। এভাবে কারো সম্পত্তি কেড়ে নিয়ে আবারও বিয়ে করতন। ফারিহা মাহবুব পিয়াসা নামের আরেক মডেলের কারনেই তিনি পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। এই মডেল ঢাকার বারিধারায় একটি অভিজাত আবাসানের ২য় তলার ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে থাকতেন। এই মহিলাই প্রথম গ্রেফতার হন পুলিশের হাতে। ওই মহিলার আবাসন থেকে উদ্ধার করা হয় নিষিদ্ধ মাদক। রীতিমত মাদক মামলায় পিয়াসাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মাদক ছাড়াও গবাদি পশু আমদানির নামে মাদক চোরাচালান ব্যবসায় পিয়াসার জড়িত থাকার বিষয়টিও উঠে এসেছে। এরপর মরিয়ম আক্তার মৌয়ের নাম বেরিয়ে আসে।

আরও পড়ুন:   মানুষ দেখলেই অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে টিয়া পাখি, কড়া সিদ্ধান্ত নিল চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ

ভাবছেন পুরুষরা কি বোকা? ১১ টা বিয়ে মুখের কথা? মরিয়ম তার স্বামীদের ব্ল্যাকমেইল করতেন। অনেক মেয়ে তার জন্য কাজ করতেন। স্বামীর সঙ্গে অন্যান্য মেয়েদের অন্তরঙ্গ অবস্থার ছবি ও ভিডিও করে রাখা হত। পরের গল্পটা সবারই বোঝা উচিত। সম্মানহানির ভয়ে টাকা দেওয়া। এভাবে রাতারাতি টাকার পাহাড় করেছিলেন মরিয়ম। বর্তমানে মোহাম্মদপুরে এই মরিয়ম আক্তার মৌয়ের একটি বিশাল পাঁচতলা বাড়ি রয়েছে। তিনটি বিলাসবহুল গাড়ি রয়েছে। অবশ্য এখন মরিয়মের স্থান বাংলাদেশ পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের সাইবার কারাগারে। তাদের সঙ্গে কারা জড়িত তা খুঁজে বের করার কাজ চলছে।

Related Articles

Back to top button