“১৫ কোটির বিনিময়ে বিধায়ক কিনছে বিজেপি” উঠল অভিযোগ, তা কী আদেও সত্যি?

bjp-flag

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ রাজস্থানে অর্থের বিনিময়ে বিধায়ক কেনার অভিযোগ আগেই উঠেছিল বিজেপির বিরুদ্ধে। এ অভিযোগ আজকের নয়।আর এবার সেই অভিযোগের ভীতকেই আরও মজবুত করলেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত।

ঠিক কী হয়েছিল? শনিবার দুপুরের সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বড়সড় অভিযোগ আনলেন বিজেপির বিরুদ্ধে। রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত বলেন, কংগ্রেসের দলে ভাঙন ধরাতে কংগ্রেস বিধায়কদের ১৫ কোটি টাকার অফার দিচ্ছে বিজেপি। আর রীতিমতো সেই প্রলোভনেই পা দিয়ে অনেক কংগ্রেস বিধায়কই বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন।

শুধু তাই নয়, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত একদম স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দেন, রাজ্য যখন করোনা মোকাবিলায় যথাসাধ্য চেষ্টা করছে, ঠিক তখনই বিজেপি নিজেদের রাজনীতির পাট চুকিয়ে নিচ্ছে।

এদিন অশোক বাবু আরও বলেন, “আমরা শুনতে পাচ্ছি, দলত্যাগ করার জন্য বিধায়কদের টাকা অফার করা হচ্ছে। কয়েক জনকে ১৫ কোটি টাকার অফার দেওয়া হয়েছে। কয়েকজনকে অন্যান্য সুবিধা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। বিধায়কদের নিয়মিত লোভ দেখানো হচ্ছে। আমি সারা দেশকে জানাতে চাই, রাজস্থানে বিজেপি সব লক্ষণরেখা অতিক্রম করেছে। তারা আমার সরকার ফেলার জন্য জোর চেষ্টা চালাচ্ছে।”

প্রসঙ্গত রাজস্থানে বিজেপি বিরুদ্ধ অর্থের বিনিময়ে বিধায়ক কেনার অভিযোগ নতুন নয়। উপনির্বাচনের কংগ্রেসের বিধায়ক কেনার অভিযোগ উঠেছিল বিজেপির বিরুদ্ধে। আর সেই ভয়ে রাজ্যের কংগ্রেস সরকার বাকি বিধায়কদের রাতারাতি সরিয়েও ফেলে।

অশোক গহলৌত বলেন, “২০১৪ সালে লোকসভা ভোটে জয়ের পরেই বিজেপির আসল চেহারা ধরা পড়েছিল। প্রথমে তারা যা গোপনে করত, এখন তা প্রকাশ্যে করছে। আমরা গোয়া, মধ্যপ্রদেশ ও উত্তর-পূর্ব ভারতে তার নমুনা দেখেছি। বিজেপি নির্লজ্জের মতো গুজরাতে সাতজন বিধায়ক কিনেছিল। ওইভাবে তারা রাজ্যসভা ভোটে জিতেছে। তারা রাজস্থানেও বিধায়ক কেনার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু আমরা তাদের চেষ্টা ব্যর্থ করেছি। আমরা তাদের এমন শিক্ষা দিয়েছি, তারা বহুদিন মনে রাখবে।”