বিনোদন

বলিউডের মেয়েরা সবাই ড্রাগখোর আর ছেলেরা ধোয়া তুলসী পাতা! মাদকচক্র বিতর্কে কটাক্ষ মিমির

বলিউডের অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যা করে মৃত্যু হয়েছে গত 14 ই জুন। কিন্তু কেন এই হাসিখুশি একজন সফল অভিনেতা হঠাৎ করে আত্মহত্যা করল সেই প্রশ্নটিতে কপালে ভাঁজ পড়েছে তাঁর পরিবারবর্গ থেকে অনুগামীদের পর্যন্ত। তার মৃত্যু রহস্যের তদন্তভার যাতে সিবিআই এর হাতে তুলে দেওয়া হয় সেই জন্যই গোটা ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ সোশ্যাল মিডিয়াতে সবর হয়েছিল। শেষমেষ সুশান্ত মৃত্যু কাণ্ডের তদন্তভার গিয়ে পড়ে সিবি আইয়ের হাতে।

এই মৃত্যু কান্ডের রহস্য ভেদ করতে গিয়ে সিবিআই এর হাতে উঠে আসে এক মাদকচক্রের হদিশ। নিষিদ্ধ মাদকচক্র নিয়মিত সেবন করায় রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই। এই মাদকচক্রের তালিকায় ধরা পড়েছে বলিউডের বিভিন্ন তারকাদের নাম। সেই বলিউড তারকারা হলেন সারা, শ্রদ্ধা, রকুলপ্রীত ও দীপিকা। এনসিবির তালিকাতে অভিনেত্রীদের নাম ধরা পড়লেও ধরা পড়েনি কোনো অভিনেতাদের নাম। এই বিষয়ে এবার কটাক্ষ করে ট্যুইটারে লেখেন সংসদ তথা টলিউড অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

তিনি লিখেছেন, “ধন্য পিতৃতন্ত্র। বলিউডে শুধুমাত্র মহিলারাই হ্যাশ, ড্রাগ ইত্যাদির খোঁজ করেন, আর বলিউডে যে সমস্ত ছেলেরা আছেন তারা শুধুই রান্না করেন। মনের দিক থেকে শুদ্ধ। বাড়িতে বসে করজোড়ে অশ্রুসজল চোখে স্ত্রীয়ের জন্য প্রার্থনা করে বলেন, ভগবান ওকে রক্ষা করুন।”

তবে কেবলমাত্র মিমি চক্রবর্তী নয় বলিউডের একাংশ অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মতে রিয়া চক্রবর্তী একজন মহিলাই বলে হয়তো তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ৮ই সেপ্টেম্বর রিয়া চক্রবর্তী যখন এনসিবির অফিসে হাজিরা দিতে যায় তখন তার পরনে ছিল কালো টি শার্ট এবং নীল ডেনিম। টি-শার্ট টি তে যে লেখাটি ছিল সেই লেখাটা কিন্তু এই পিতৃতন্ত্রের বিরুদ্ধে ছিল। টিশার্টে লেখা ছিল ‘গোলাপের রঙ লাল, বেগুনির রং নীল; চলো পিতৃতন্ত্রকে ধ্বংস করি, তুমি আর আমি’। ঠিক তার পরের দিনই গ্রেপ্তার করা হয় তাকে।

Related Articles

Back to top button