বিনোদন

‘ধর্ষকদের প্রকাশ্যে গুলি করে মারা হোক’ দলিত তরুণীর মৃত্যুতে গর্জে উঠলেন বলিউড কুইন কঙ্গনা

কিছুদিন আগে মা এবং ভাইয়ের সঙ্গে অন্য দিনের মতো ফসল কাটতে গিয়েছিল একটি ফুটফুটে কুড়ি বছরের তরুণী। কিন্তু এটি যে আমাদের দেশ ভারত বর্ষ। এখানে মেয়েদের খোলা মনে চলাচল করা যায় না। তাই মা এবং ভাইয়ের সঙ্গে বের হলেও তাকে আর বাড়ি ফিরতে হলো না।তথাকথিত ব্রাহ্মণ পরিবারের কিছু পুরুষ তাকে নির্মমভাবে অত্যাচার করে। শুধুমাত্র ধর্ষণ করে ছেড়ে দেওয়া হয় না তাকে, তার জিভ কেটে নেওয়া হয়। এতটাই অত্যাচার করা হয় তাকে, যে তরুনীর শিরদাঁড়ার হার পর্যন্ত ভেঙে যায়। উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে এই ঘটনা ঘটে।

এমতাবস্থায় যুবতীর মৃত্যুর খবর প্রকাশে আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন ভারতবর্ষের আমজনতা। প্রত্যেক নেটিজেন এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। অবিলম্বে দোষীদের শাস্তির জন্য আবেদন করেছেন সকলে। এর আগেও আমাদের দেশে ধর্ষকদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হয়েছে। তাই সেদিকে তাকিয়েই আবার উপযুক্ত শাস্তির এবং মৃত তরুনীর ন্যায়বিচারের জন্য আবেদন করা হয়েছে সরকারের কাছে।

অন্যদের মতো ধর্ষকদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। জগতের মৃত্যুর খবর আসার পরই গর্জে ওঠেন তিনি। টুইট করে বলেন যে,”অবিলম্বে এই ধর্ষকদের প্রকাশ্যে গুলি করে মারা হোক। প্রতি বছর এই ভাবে গণধর্ষণের ঘটনা যেভাবে বেড়ে চলেছে আমাদের ভারতবর্ষে, অদূর ভবিষ্যতে বাড়ির মেয়েরা বাড়ি থেকে বের হতে ভয় পাবে। আজ দেশের জন্য খুবই একটি লজ্জার দিন। একটি মেয়ে হয়েও আমরা পাচ্ছি না অন্য মেয়েকে রক্ষা করতে”।

এরপর আবার বুধবার মৃত তরুনীর অপরাধীদের শাস্তির দাবি তুলে টুইট করেন অভিনেত্রী। তিনি লেখেন যে, “উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এর উপর তার পূর্ণ ভরসা রয়েছে। হায়দ্রাবাদে যেভাবে পশু চিকিৎসকের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল, যেভাবে প্রকাশ্যে অপরাধীদের গুলি করে মারা হয়েছিল, তেমনই এবারেও আশাকরি উপযুক্ত শাস্তি পাবে দোষীরা”।

এইসব বিতরক এর মধ্যেই শুটিং করে ফিরে গেছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। তিনি শুরু করে দিয়েছেন থালাইভি র শুটিং। এছাড়া সম্প্রতি প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা বায়োপিক এর কাজ শুরু করেছেন কঙ্গনা। গতকাল শুটিং থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি শেয়ার করেন তিনি।

Related Articles

Back to top button