দেশনিউজ

সীমান্তে প্রবল উত্তেজনা, চীনকে জব্দ করতে লাদাখে মোতায়েন শক্তিশালী ট্যাঙ্ক, ঘুম উড়ছে চীনের

ভারতের কাছে চীন একের পর এক ঝটকা খেয়ে চলেছে। প্রথমে ৫৯ টি চাইছিনা অ্যাপ চাইনিজ অ্যাপ পুরোপুরিভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল ভারতে, তারপরেই যখন ১২৮ টি চাইনিজ অ্যাপ সম্পূর্ণরূপে ব্যান্ড করা হয় তখন নড়েচড়ে বসেছিল চীন। অবশেষে লাদাখেও চীনকে জব্দ করতে তৎপর ভারত।

একাধিক বৈঠক করার পরেও চীনের সাথে কোন সম্পর্কের উন্নতি হয়নি। তাই সামনা সামনি সময়ের জন্য প্রস্তুত থাকার জন্য কোমর বেঁধে নামল ভারত। চীনাদের যেকোনো হামলার চূড়ান্ত জবাব দেয়ার জন্য মোতায়েন করা হলো দুটি কমব্যাট ট্যাংক।

T-72 এবং T-90 এই ট্যাঙ্ক দুটি – 40 ডিগ্রী তাপমাত্রাতেও সুষ্ঠুভাবে কাজ করে বলে জানা গেছে। এর একটি সুবিধা হল লাদাখের তীব্র ঠাণ্ডাও কাবু করতে পারবে না এই ট্যাঙ্ককে। ভারত জানিয়েছেন লাদাখের মতো জায়গায় তীব্র ঠাণ্ডায় যুদ্ধের জন্য তৎপর থাকার জন্য প্রয়োজনীয় যে দুটি জিনিস লাগে অর্থাৎ কঠোর মনোভাব যুক্ত সৈনিক এবং সঠিক যন্ত্র। এগুলির সবকটি এখন ভারতের কাছে রয়েছে অর্থাৎ চিনা সৈন্যদের যেকোনো হামলার সম্পূর্ণরূপে জবাব দিতে ভারত তৈরি।

পূর্ব লাদাখের যে অংশে সেনাবাহিনীরা লড়াই করার জন্য প্রস্তুত হয়েছেন এবং ঘাঁটি গেড়েছে সেইখানে লড়াই করার জন্য খুবই উপযুক্ত। এই দুটি এবং এই ট্যাংক বাহিনীর থেকে এলওসির দূরত্ব সামান্য কিছু মিনিট। এবং এই তীব্র ঠান্ডায় তৎপরতার সাথে যন্ত্রগুলি চালানোর জন্য যে কঠোর মনোবল লাগে সেই মনোবল নিয়েও প্রস্তুত ভারতীয় সেনারা।

এর আগেও লাদাখের দক্ষিণ দিকটি অর্থাৎ প্যাংগং লেক এর দিকটিও যথোপযুক্তভাবে ঘাঁটি মজবুত করেছিল ভারত। এখন পূর্ব লাদাখ ও সাবলীলভাবে ভারতের তত্ত্বাবধানে সুরক্ষিত এবং প্রস্তুত। ভারতের এই কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার ফলে চীনারা যে যথেষ্ট জব্দ হয়েছেন তা বোঝাই যাচ্ছে তাদের কার্যকলাপ। এরপর ছোট একটি পদক্ষেপ নিতে গেলেও তাদের দশবার ভাবতে হবে যে পদক্ষেপটি নেয়ার পর তারা ভারতীয়দের থেকে সুরক্ষিত থাকবে কিনা।

Related Articles

Back to top button