স্বস্তির খবর, করোনা মুক্ত ভারতের আরো একটি রাজ্য

দেশে উদ্বেগ বাড়িয়ে ক্রমশ বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ। এর মাঝেই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলল ভারতের একটি রাজ্য মিজোরাম। রাজ্যে একমাত্র করোনা আক্রান্ত রোগীর রিপোর্ট নেগেটিভ এবং নতুন কোনো সংক্রমণের খবর না থাকায় মিজোরাম কে করোনা কবল থেকে মুক্ত বলে ঘোষণা করল সেখানকার রাজ্য সরকার।

মিজরামে একমাত্র করোনা আক্রান্ত সেখানকার একটি চার্চে কর্মরত ছিলেন। গত ১৬ ই মার্চ আমস্টারডাম থেকে ফেরার পরে তার শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা যায়। এরপরই ২৪ শে মার্চ তাকে জোরাম মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয় পাশাপাশি তার স্ত্রী ও মেয়েকে কোয়ারান্টিনে রাখা হয়। ওই ব্যক্তির লালা রস পরীক্ষার পরেই করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে তার শরীরে। এবং স্ত্রী ও মেয়ের শরীরে কোনো সংক্রমণ না মেলায় চারদিন পরে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় তাদের।

করোনায় আক্রান্ত ওই রোগীর ৪৫ দিন ধরে চিকিৎসা চলে। এরপর ধীরে ধীরে চিকিৎসায় সাড়া দেন চার্চে কর্মরত ওই ব্যক্তি। এবং লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করে কয়েকবার পরীক্ষা করলে তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপরে ওই ব্যক্তিকে আনুষ্ঠানিকভাবে ছুটি দিয়েছেন ডাক্তাররা, জানান স্বাস্থ্যমন্ত্ৰী ডা. লালথাংলিয়ানা।

মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী পু জোরামথাঙ্গা রাজ্যকে করোনামুক্ত ঘোষণা করে জানান, “মিজোরাম এমন একটি রাজ্য যেখানে নিয়ম-শৃঙ্খলা অমান্য করা হয় না। রাজ্যের সবকটি চার্চ, স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ও সরকারি আধিকারিকরা সম্মিলিতভাবে কাজ করছেন। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যবাসীদের ভূমিকাও প্রশংসনীয়। রাজ্যে প্রথম করোনা রোগীর সন্ধান পেতেই সংক্রমণ ঠেকাতে প্রটোকল তৈরি করা হয়। লকডাউনের বিধি নিষেধ কঠোরভাবে মেনে চলেছিলেন মিজোরামের বাসিন্দারা। যে কারণেই সংক্রমণ ছড়াতে পারেনি।”

উত্তর-পূর্ব ভারতের চারটি রাজ্য সিকিম, মণিপুর, নাগাল্যান্ড এবং অরুণাচল প্রদেশ পর শাপ মুক্ত রাজ্যের তালিকায় নাম যুক্ত হলো মিজোরামের।