ভারতে ধেয়ে আসছে ভয়ংকর ঘূর্নিঝড় ‘নিভার’

হুরমুড়িয়ে ভারতবর্ষে ঢুকে পড়েছে শীত। গতকাল থেকে কনকনে হাওয়ায় কেঁপে যাচ্ছে গোটা ভারত বর্ষ। কিন্তু তার মধ্যেই তৈরি হয়ে গেছে দুটি ঘূর্ণিঝড়। আরব সাগর এবং বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে নতুন দুটি ঘূর্ণিঝড়।দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এর উপর সৃষ্ট এই নিম্নচাপ আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়ে তামিলনাড়ু উপকূলে অগ্রসর হবে বলে জানানো হয়েছে।

এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম নিভার। এই ঘূর্ণিঝড় টির নাম দেওয়া হয়েছে ইরানের থেকে।ভারতীয় আবহাওয়া সূত্রে খবর পাওয়া গেছে যে, ২৫ শে নভেম্বর তামিলনাড়ু এবং পন্ডিচেরিতে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড়। আছড়ে পড়ার সময় তার গতিবেগ থাকবে প্রতি ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার।

এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ২৩ শে নভেম্বর থেকেই দক্ষিণ ভারতের উপকূলীয় রাজ্যগুলিতে বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। তামিলনাড়ু এবং পন্ডিচেরিতে আজ এবং আগামীকাল ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি সম্ভাবনা রয়েছে।অন্যদিকে অন্ধপ্রদেশের দক্ষিণ উপকূলে এবং তেলেঙ্গানায়২৫ ও ২৬ নভেম্বর ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

তামিলনাড়ুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর পাওয়া গেছে যে, এই গভীর নিম্নচাপ চেন্নাইয়ের দক্ষিনে ৭৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। আগামীকাল মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার জন্য নিষেধ করে দেওয়া হয়েছে। এদিকে দেশের আবহাওয়া নিয়ে আজ সকাল ন’টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে যে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশ যুক্ত আবহাওয়া এবং শুষ্ক আবহাওয়া থাকতে পারে। ভোরের দিকে পড়তে পারে হালকা কুয়াশা।

আবহাওয়ার সিন্থেটিক অবস্থায় বলা হয়েছে যে, দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে এবং তার কাছাকাছি এলাকায় অবস্থিত এই ঘূর্ণিঝড় আরো বেশি ঘনীভূত হতে পারে। উপদেশে উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গ এবং তার কাছাকাছি এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে।

পরবর্তী তিন দিনের আবহাওয়ার কোন উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন থাকবে না। আজ সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরে কোন সতর্কবাণী নেই বা কোনো সংকেত দেখানো যাবে না।