নিউজরাজ্য

বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপ, ধেয়ে আসছে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ভারী বৃষ্টি

তাপমাত্রা কমার সময়ে এসে গেলেও সেই পথে ভিলেনের মতো পথ আটকে দেখা দিচ্ছে নিম্নচাপ। এই নিম্নচাপটির উৎপত্তিস্থল পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর থেকে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন শীতের অনুভূতির পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে এই নিম্নচাপটি এর ফলে এই সময়েও ভ্যাপসা গরম তার সাথে সাথে বিকেলের দিকে মাঝে মাঝে আকাশ ঘনিয়ে আসছে কালো মেঘে।

যে ঘূর্ণবাত টি ইতিমধ্যে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে তার উৎপত্তিস্থল টি ছিল পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর এবং উত্তর আন্দামান সাগর এর সংলগ্নে। বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসা এই নিম্নচাপটি মিয়ানমার উপকূলের উপর দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। জানা গেছে আগামী 48 ঘন্টা এর পথের কোনো পরিবর্তন হবে না অর্থাৎ এটি যে পথে এগোচ্ছিল সেই একই পথে এগিয়ে যাবে। তাপমাত্রা পরিবর্তন হওয়ার বিশেষ কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এই নিম্নচাপটি অর্থাৎ এর ফলে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তাপমাত্রার পরিবর্তন হবে যার ফলে এই সময়ে তাপমাত্রা কিছুটা বেড়ে যাবে।

অপরদিকে যেহেতু এর একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখা অবস্থান করছে তার কারণে কিছুদিন সকালের দিকে তাপমাত্রা কম থাকলেও পরবর্তীকালে সেটি আবার বৃদ্ধি পেয়েছে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন তাপমাত্রা কমার কোন সম্ভাবনা নেই এখন, আগামী বৃহস্পতি বা শুক্রবারের পর তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে। সেই সময় কলকাতার তাপমাত্রা যথেষ্ট কম অর্থাৎ প্রায় ১৯ ডিগ্রি তেও নামতে পারে।

আবহাওয়া দপ্তর যে পূর্বাভাস দিয়েছেন তার থেকে জানা গেছে উত্তরবঙ্গের ছটি জেলায় আগামী ২৪ ঘণ্টায় শুষ্ক আবহাওয়া থাকতে পারে। এই ৬ টি জেলার মধ্যে রয়েছে উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদা, জলপাইগুড়ি, কালিংপং, দার্জিলিং। এছাড়াও হালকা বৃষ্টি হতে পারে কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ারে।

পাশাপাশি আবহাওয়া দপ্তর সোমবার যে রিপোর্টটি দিয়েছেন তা থেকে জানা গেছে পাঁচটি জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই পাঁচটি জেলার অন্তর্গত রয়েছে দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার। এছাড়াও দক্ষিণবঙ্গের কিছু জেলায় সম্ভাবনা থাকছে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা বৃষ্টি হওয়ার।

Related Articles

Back to top button