হাতির মলের তৈরি চায়ে চুমুক দিলেন অক্ষয় কুমার! কি হয়েছে খিলাড়ির?

হাতির মলের তৈরি চায়ে চুমুক দিলেন অক্ষয় কুমার! কি হয়েছে খিলাড়ির?

অক্ষয় বোলে তো ফিট অ্যান্ড বোল্ড। আপনারা যারা অক্ষয়ের ফ্যান তাঁরা নিশ্চয় জানেন অক্ষয়ের ফিটনেস সম্পর্কে। এখনও কাঁপিয়ে দিচ্ছে বলিউড। আর এবার কাপাচ্ছে জঙ্গলও। কীভাবে? আপনারা নিশ্চয় বিয়ার গ্রিলসের নাম শুনেছেন। ডিসকভারি চ্যানেলে বিয়ার গ্রিলসের প্রচুর এডভেঞ্চার শো টেলিকাস্ট করা হয়। পৃথিবীর দুর্গম দুর্গম স্থানে ঘুরে বেরিয়েছেন বিয়ার গ্রিলস। এমনকি এভারেস্ট জয় করে মাত্র ২৩ বছর বয়সে তিনি গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এ সর্বকনিষ্ঠ ব্রিটিশ হিসেবে এভারেস্ট জয়ের রেকর্ড করেন। এবারে এই সাহসী ব্যক্তির সঙ্গে আরও বন্য হয়ে উঠলেন অক্ষয় কুমার।

‘ইন টু ওয়াইল্ড উইথ বিয়ার গ্রিলস’ এই এডভেঞ্চার মূলক অনুষ্ঠানে দেখা গেছে বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমারকে। ১১ই সেপ্টেম্বর ডিসকভারিতে দেখা যাবে এই শো। গভীর জঙ্গলে কীভাবে বিয়ারের সঙ্গে পাল্লা দিলেন তা দেখার জন্য অধীর অপেক্ষায় রয়েছেন অক্ষয়ের ফ্যানেরা। তবে এরই মধ্যে অক্ষয় শেয়ার করলেন তাঁর শো-এর টিজার। আর টিজারটি সামনে আসতেই সাড়া ফেলে দেয় সকলের মনে। নিমিষে ভাইরাল হয়ে ওঠে এই ভিডিও।

akshay 2

এখানে অক্ষয় কখনো গাড়ি থেকে ঝাঁপ দিচ্ছেন, তো কখনো সাঁতরে পার হচ্ছেন গভীর জলাশয় তো কখনো বন্য জীবজন্তদের পাশে থেকে বেঁচে থাকার লড়াই শেখাচ্ছেন। আপনি যদি টিজারটি ভালো করে খেয়াল করেন তবে দেখবেন যে বিয়ার গ্রিলস ও অক্ষয় হাতির মলের চা পান করছেন। যদিও বিয়ার সেই চা অক্ষয়ের অলক্ষ্যে ফেলে দেন কিন্তু আমাদের খিলাড়ি তাতে চুমুক দিয়েই দেন। শেষে কিনা হাতির মলের চা! দর্শকরা এই টিজারটি দেখে বেশ মজা লুটেছেন, কম যাননি অক্ষয় পত্নি টুইঙ্কলও।

প্রসঙ্গত, অক্ষয় কুমার জানান, ” আমি বিয়ার গ্রিলসকে সন্মান ও প্রশংসা জানাই তাঁর অসীম শক্তি, আবেগ এবং তিনি এত বছর ধরে যা করেছেন তার জন্য, সিনেমার সেটের তুলনায় এটি আলাদা, কারণ কোনও ব্যাক-আপ নেই – বাস্তবতার এই ধারণাটি খুব বেশি শক্তিশালী।” (I have always admired Bear Grylls for his energy, passion and what he has stood for all these years. It was a humbling experience being with him in the wild as he went about unfolding one challenge after another. It is different out there, as compared to movie sets, as there is no back-up – that sense of realism is very overpowering.)

চলুন টিজারটি একবার দেখে নিই-