সুশান্ত অবসাদে আছে জেনেও কেন রিয়া ড্রাগস দিত? প্রশ্ন তুললেন অঙ্কিতা

সুশান্ত অবসাদে আছে জেনেও কেন রিয়া ড্রাগস দিত? প্রশ্ন তুললেন অঙ্কিতা

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ৮১ দিন পর মাদক যোগের অভিযোগে এনসিবি গ্রেফতার করেছে সুশান্তের বান্ধবী অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীকে। আপাতত রিয়াকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বর্তমানে বাইকুলা জেলের মহিলা সেলে দিন কাটছে অভিনেত্রীর। রিয়ার গ্রেফতারির খবর পাওয়া মাত্রই সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়ে ‘অবসাদে আছে জেনেও ড্রাগ নিতে দিল কেন’ প্রশ্ন ছুড়লেন সুশান্তের প্রাক্তন বান্ধবী অভিনেত্রী অঙ্কিতা।

লাগাতার তিনদিন জেরার পর মঙ্গলবারও এনসিবি জেরা করে রিয়া চক্রবর্তীকে। একটানা জেরার মুখে পড়ে রিয়া স্বীকার করেন সে ড্রাগ নিতেন। এমনকি মাদক সেবন করতেন নিয়মিত। আর তারপরই মঙ্গলবার গ্রেফতার করা হয় রিয়াকে। সূত্রের খবর, NDPS আইনের ৬৭ নম্বর ধারায় রিয়া চক্রবর্তী তাঁর দোষ কবুল করেছেন। সেই অনুযায়ী জেল হেফাজতে রয়েছে সে। রিয়ার আইনজীবীর চেষ্টা কোনও কাজে আসেনি। জামিনের আবেদন করা হলে, তা খারিজ করে দেওয়া হয় গতকাল।

অন্যদিকে রিয়া চক্রবর্তীর গ্রেফতারির পরেই ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে এক লম্বা পোস্ট লেখেন সুশান্তের প্রাক্তন বান্ধবী অঙ্কিতা। তিনি লেখেন, ‘আমি মিডিয়া বন্ধুদের বলে দিই, আমি কখনও বলিনি সুশান্তের মৃত্যু আত্মহত্যা নয়, খুন ! আমি তো শুধু সুশান্তের জন্য বিচার চেয়েছিলাম। ওর পরিবারের পাশে থেকেছি। আমি কি জানবো এটা খুন কিনা ! আমার সিবিআই ও মহারাষ্ট্র সরকারের ওপর বিশ্বাস আছে। আমি সামনে এসেছিলাম ২০১৬ পর্যন্ত সুশান্তের মানসিক স্থিতি কেমন ছিল তা বলার জন্য। সুশান্ত সবার সামনে বলেছিল ও ডিপ্রেশনে আছে। নাম প্রকাশ না করেই অঙ্কিতা বলেন, ‘অবসাদে আছে জেনেও ড্রাগ নিতে দিলে? এ কেমন ভালবাসা তোমার?’ ইতিমধ্যেই অঙ্কিতার প্রশ্ন ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রসঙ্গত,এক হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকেই নিষিদ্ধ মাদক পাচার চক্রের হদিশ পায় ইডি। আর সেখান থেকেই পর্দা ফাঁস হয়েছে এক এক করে। মাদক চক্রে জড়িত থাকার কারণে ইতিমধ্যেই সুশান্ত সিং রাজপুতের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা, রিয়া চক্রবর্তীর ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে আটক করা হয়। সৌরভ আটক হতেই জেরার মুখে দিদির সমস্ত কিত্তি ফাঁস করে দেয় ভাই। আর তারপরেই গ্রেফতার হয় রিয়া চক্রবর্তী।