বিনোদন

মিঠুন চক্রবর্তীর দত্তক কন্যা এখন সুন্দরী যুবতী, সৌন্দর্যের নিরিখে বলিউড নায়িকাদেরও হার মানাবে দিশানী

Advertisements

Advertisements

বাঙালীর গর্ব মিঠুন চক্রবর্তী আশির দশকে বলিউড কাঁপিয়েছেন। ভারতীয় সিনেমার প্রথম সুপারস্টারও বলা হয় মিঠুনকে। প্রকৃতপক্ষেই একজন সুপারস্টারের মতো দাপিয়ে বেড়িয়েছেন অভিনয় জগতে। হিন্দি, বাংলা সহ দেশের প্রায় সমস্ত আঞ্চলিক ভাষার সিনেমাতেই মিঠুন দাপিয়ে অভিনয় করেছেন। তাঁর অসাধারণ অভিনয় আপামর দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছে।

Advertisements

Advertisements

হিন্দি সিনেমার সুপারস্টার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার পর মিঠুন বিয়ে করেন অভিনেত্রী যোগিতা বালিকে। মিঠুন ও যোগিতার চার সন্তান, যার মধ্যে তিন পুত্র এবং একটি দত্তক কন্যা। মিঠুনের এই কন্যা সন্তান দত্তক নেওয়ার পিছনের গল্পটি খুব সুন্দর।

বহু বছর আগে কলকাতার এক ডাস্টবিনের পাশে এক শিশু কন্যাকে পাওয়া গিয়েছিল। সাথে সাথেই খবর পেয়ে পুলিশের আসে। এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে উদ্ধার করা হয় শিশু কন্যাটিকে। খবরের কাগজে এই খবরটি পড়েন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। মিঠুন তখন তিন পুত্র সন্তানের পিতা। তাঁর চিরদিনের ইচ্ছা ছিল এক কন্যা সন্তানের পিতা হওয়ার। এই খবর পড়ে তিনি যোগাযোগ করেন ওই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে। মিঠুন এবং তাঁর স্ত্রী যোগিতা বালি দত্তক নেন এই শিশু কন্যাটিকে। যাকে মা বাবার ফেলে দিয়েছিল তাকেই কোলে তুলে নেন এই তারকা দম্পতি। কন্যা সন্তানটির নাম রাখেন দিশানী চক্রবর্তী। বাড়িতে নিয়ে আসার পর থেকেই সকলের খুব প্রিয় হয়ে উঠেছিল দিশানী। বাবা, মা এবং তিন দাদার চোখের মনি ছিল দিশানী।

ছোটবেলা থেকেই লাইমলাইটে দিশানীকে দেখা যেত না। জাঁকজমক থেকে অনেকটাই দূরে থাকতে পছন্দ করতেন দিশানী। তবে দিশানীকে আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই দেখা যায়। প্রায়শই তার ভক্তদের জন্য নিজের ছবি, ভিডিও পোস্ট করতে থাকেন ইনস্টাগ্রামে। ছোট থেকেই বিটাউনের তাবড় তারকা, পরিচালকদের সাথে ওঠাবসা করেন দিশানী। তাই খুব শিগগিরই কোনো বড় ছবি দিয়ে বলিউডে পা রাখতেই পারেন।

Related Articles