নিউজখেলাধুলা

আইপিএলে ফের ফিক্সিং কান্ড! জনপ্রিয় ক্রিকেটারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা বুকির

আইপিএলের প্রতি কলঙ্কের ছাপ লাগার অন্যতম কারণ হচ্ছে বুকিরা। এর আগেও বুকিদের চক্করে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের মতন কলঙ্ক লেগেছিল আইপিএলের উপরে। তাই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড কঠোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে যাতে আইপিএলকে সম্পূর্ণ রূপে কলঙ্ক মুক্ত রাখা যায়। বোর্ডের এত সর্তকতা থাকা সত্বেও যেন কোন জায়গায় খামতি থেকে যাচ্ছে।

আইপিএল এমন একটি খেলা যাতে টাকার কোন কমতি নেই, তাই বুকিরা মুখর হয়ে আছেন সবসময় কিভাবে তাদের থাবা আইপিএলে জমানো যায়। এমনিতেই ২০১৩ সালে বুকিদের চক্করে আইপিএল ফিক্সিংয়ের মতন নিন্দাজনক কান্ড ঘটেছিল ফলে তার পর থেকেই বিসিসিআই অত্যন্ত সজাগ এবং সতর্ক হয়ে ওঠে। তবুও থেকে যাচ্ছে ফাঁক, কিভাবে বুকিদের নজর আইপিএল থেকে দূরে রাখা যায় সে বিষয়ে অত্যন্ত চিন্তিত কর্তৃপক্ষ।

কিছুদিনের মধ্যেই দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে আইপিএল এবং সেখানেই আইপিএল ফিক্সিং কাণ্ড ঘটাতে চাইছে বুকিরা। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে খবর চলে এসেছে বিসিসিআই কর্তাদের কানে, ফলে বিসিসিআইয়ের দুর্নীতি দমন শাখার অফিসাররা আরও বেশি সজাগ হয়ে উঠেছেন বলে জানা গেছে।

অজিত সিং অর্থাৎ বিসিসিআই দুর্নীতি দমন শাখার প্রধান যিনি, তিনি তার মন্তব্যে বলেছেন এরইমধ্যে বুকিদের নজর দলের একটি ক্রিকেটারের ওপর পড়েছে। এমনকি বুকিরা সেই ক্রিকেটারের সঙ্গে যোগাযোগও করেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। অবশ্য তাতে তেমন কিছু সুবিধা করে উঠতে পারিনি বুকিরা কারণ সেই ক্রিকেটার ইতিমধ্যেই তার সাথে যোগাযোগ করার খবরটি বোর্ডকে সম্পূর্ণভাবে জানিয়ে দিয়েছেন। এর ফলে কর্তৃপক্ষ সেই খেলোয়াড়টির বিষয়ে সমস্ত রকম তথ্য ইতিমধ্যেই গোপন করে দিয়েছেন। বিসিসিআই এর দুর্নীতি দমন শাখার কড়া নজরদারির ফলে দুবাই-এ বসে থাকা বুকিরা এইবার ঠিক থাবা জমাতে পারছে না আইপিএলে।

এমনিতেই করোনাতে বেহাল এই পরিস্থিতিতে আইপিএলের কথা ভাবতেই পারেনি দেশবাসী। কিন্তু জনপ্রিয় এই খেলাকে বিসিসিআই অবশেষে অত্যন্ত সুরক্ষা এবং নিরাপত্তার সাথে শুরু করতে সক্ষম হয়েছে। পাশাপাশি জানা গেছে দলের খেলোয়াড়রা যে স্থানে থাকছেন সেই স্থানটি অত্যন্ত ভাবে জৈব সুরক্ষিত এবং অন্য কোন ব্যক্তিকে সেই খেলোয়ারদের কাছে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। এমনকি সেই সুরক্ষিত স্থান থেকে বেরিয়েও অন্যত্র যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বিসিসিআই।

পাশাপাশি প্রতিনিয়ত চলেছে দুর্নীতি দমনের বিষয়ে খেলোয়াড়দের সতর্ক করা। আইপিএল শুরু হওয়ার আগেও দুর্নীতি দমন কর্তৃপক্ষ দলের সমস্ত খেলোয়াড়দের নিয়ে একটি বৈঠকে বসেন বলেও জানা গিয়েছে, সেখানে দলের নবীন খেলোয়াড়দের উপর বিশেষ নজরদারি রাখা হয়েছে এবং তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাতে কোনরকম ছলনার শিকার না হতে হয়।

Related Articles

Back to top button