“স্বাস্থ্যবিমা মে মাস থেকে বাড়িয়ে জুলাই মাস পর্যন্ত করা হল”, নবান্ন বৈঠকে জানালেন মমতা

স্বাস্থ্যবীমা মে থেকে জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হল। করোনার পরিস্থিতি নিয়ে নবান্ন থেকে জেলা পঞ্চায়েত অফিসের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ কথা জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেছিলেন যে গুরুতর অসুস্থতার ক্ষেত্রে তাত্ক্ষণিকভাবে 1 লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে। এটি ইতিমধ্যে 53 জনকে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও আমরা স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স, চিকিৎসক ও পুলিশ কর্মীদের জন্য ১০ লক্ষ টাকা বীমা করেছি, এমনটাই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার বিকেলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন। নবান্নে তিনি বলেছেন, এখানে করোনার থাকবে, তার মধ্যেই গ্রামীণ বাংলার অর্থনীতি শুরু করতে হবে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, আগামী দিনগুলিতে আরও দোকান খোলা হবে। তাঁর মতে, 100 দিনের কাজ শুরু করতে হবে। এই কাজে প্রয়োজনে ভিনরাজ্যের শ্রমিকদের নিয়োগ করতে হবে বলে মন্তব্য তাঁর। বিশেষত যারা এই রাজ্যে আটকে আছেন। একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী কড়া বার্তাও দিয়েছিলেন। বিশেষত রেশন নিয়ে। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন যে রেশন ডিলারদের চাল ও গম গোপন করা উচিত নয়। আমাদের খেয়াল রাখতে হবে যেন কেউ ক্ষুধার্ত না হয়। জেলা গভর্নরদের তা দেখতে হবে।

মুখ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার জানিয়েছিলেন যে গহনা, বৈদ্যুতিন, ইলেকট্রনিক্সের দোকান, মোবাইল পরিষেবা এবং ছোট খাবারের দোকান খোলা হবে। তবে ছোট দোকানেও বসে খাওয়া যাবে না। তাছাড়া এখনই কোনও বড় রেস্তোঁরা খোলা হচ্ছে না। তাঁতের হাট, খাদি বাজার, বিশ্ব বাংলা হাট খোলা হয়েছে। দোকানগুলি দুপুর বারোটা থেকে সন্ধ্যা 6 টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। রফতানি ও আমদানি চালু হচ্ছে। বাস এবং ট্যাক্সি গ্রিন জোন জেলায় চলবে। সিনেমা-সিরিয়ালের শুটিংয়ের ক্ষেত্রে এডিটিং-ডাবিংয়ের প্রচলন করা হবে। তবে নতুন শুটিং নয়।