শীতকালে প্রাকৃতিক উপায়ে ঠোঁট ফাটা মোকাবিলার সহজ কয়েকটি টিপস

12

ডিসেম্বর মাসে প্রচন্ড শীতে সকলের ত্বকে শুষ্কতা লক্ষ্য করা যায়। ঠোঁটের ত্বকের ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয় তার কারণ ঠোঁটের ত্বক শরীরের ত্বকের থেকে বেশি কোমল হওয়ায়। তাই ঠোঁটটিকে খুবই যন্তে রাখতে হয় শীত কালে। ফাঁটা ঠোঁট খুবই যন্তনা দায়ক এবং দেখতে খুবই বাজে লাগে।

ঠোঁট ফেটে যাওয়ার এই সমস্যাকে ঠেকানো সম্ভব যদি আপনি আগে থেকে সচেতন থাকেন। প্রাকৃতিকভাবে খুব সহজেই ঠোঁট ফাটার সমাধান করা সম্ভব এনডিটিভি ও বিশেষজ্ঞদের তথ্য অনুযায়ী। কয়েকটি উপায় জেনে নিন।

আরও পড়ুন:   ঝিনুক চাষ করে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করুন, জেনেনিন পদ্ধতি

প্রচুর জল পান করুন: প্রত্যেকদিন জল পান করতে হবে ৮-১০ গ্লাস। জল খেলে আপনার ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে। ‘ডার্ক লিপ্স’য়ের সমস্যা হতে পারে ডিহাইড্রেশনের ফলে। প্রচুর জল পান করুন শরীরের আদ্রতা বজায় রাখতে।

শীতের সবজি ও ফল: নানা সবজি ও ফল পাওয়া যায় শীতকালে। আপনাকে পর্যাপ্ত পরিমাণে ফল ও সবজি খেতে হবে ঠোঁট ভালো রাখতে। এ সময় ভিটামিন সি যুক্ত খাবার বেশি পরিমাণে খান ঠোঁট ভালো রাখতে।

ঘি: ঠোঁট নরম রাখতে সাহায্য করবে এক ফোঁটা ঘি। কারণ কি আপনার ঠোঁটের আদ্রতা ধরে রাখবে।

আরও পড়ুন:   বাড়িতে টিকটিকি রয়েছে? শীঘ্রই বদলাতে চলেছে আপনার ভাগ্য, জানুন কিভাবে

গোলাপের পাপড়ি ও দুধ: কাঁচা দুধে কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখতে হবে গোলাপের পাপড়ি। এরপর সেই দুধ আপনি দিনে তিনবার ঠোঁটে লাগাবেন। এর ফলে আপনার ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হবে এবং ঠোঁট মসৃণ ও চকচকে হবে।

মধু: আপনি নরম ঠোঁটের অধিকারী হতে পারেন মধু ও গ্লিসারিনের পেস্ট বানিয়ে ঠোঁটে লাগালে।

চিনি: চিনি ঠোঁটকে নরম রাখে এবং মৃত কোষগুলি কে তুলে ফেলে।

চালের গুঁড়ো: চালের গুলো জলে ভিজিয়ে ঠোটেঁ কালো অংশগ্রহণ আপনার ঠোটের কালো দাগ উঠে যাবে।

আরও পড়ুন:   ত্বকের সৌন্দর্য ফেরাতে গাজরের ফেসপ্যাক ব্যবহার করুন, রইল কিছু সহজ টিপস

যা করবেন না আর যা করবেন: ঠোঁটের যত্ন নিতে কি কি করবেন তার পাশাপাশি জেনে রাখুন কি কি করবেন না। জিব দিয়ে বারবার ঠোঁট ভেজানো যাবেনা। কারণ এই কাজটি করলে আপনার ঠোঁট আরো শুকিয়ে যাবে। এছাড়া আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যাতে দাঁত মাজার সময় বা হাত মুখ ধোয়ার সময় ঠোঁটে জোরে ঘষা না লাগে। শীতকালে ম্যাট কালার লিপস্টিক ব্যবহার করলে আপনার ঠোঁটের ক্ষতির সম্ভাবনা কম থাকে।