চিনের পন্য বয়কট করে কেমন আছে আত্মনির্ভর ভারত?

atma-nirbhar-bharat

নিজস্ব প্রতিবেদন: চিন এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার কথা আগেই জানত, কিন্তু বেমালুম চেপে গিয়েছিল সবটা। এমনটাই আশঙ্কা করেছিল আমেরিকা। আর তাই সত্যতা জানতেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সাথে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এছাড়াও লাদাখ সংঘর্ষের পরেই ভারতে ব্যান করা হয় চিনের সমস্ত অ্যাপ। এবং সমস্ত দ্রব্যাদি। এমনকি পরিস্কার করে বলেও দেওয়া হয়, প্রতিটি পন্যে উল্লেখ করা বাধ্যতামূলক এটি কোন দেশে তৈরি হয়েছে। নয়তো আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চিন কে ত্যাগ করে ভালোই আছে আত্মনির্ভর ভারত। ভারত সরকার স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছে যে, আমরা চীনের বিকল্প এবং সমস্ত বিশ্ব, ভারতের উপর ভরসা রাখতে পারে।
মোদী সরকার চীনের উপর আর্থিক ও সামরিক দুইদিক থেকেই প্রহার করেছে। যা নামিদামি সংস্থাগুলির জন্য স্পষ্ট ইঙ্গিত, যে ভারত এখন শক্তিশালী।

গত ১ সপ্তাহে ভারতে বহু কোটি টাকার বিনিয়োগ হয়েছে। নানা বড়ো বড়ো সংস্থার ভারতের প্রতি বিশ্বাসযোগ্যতা বেড়েছে। বিনিয়োগকারীদের আস্থা ভারতের প্রতি বৃদ্ধি পেয়েছে। চিপ স্নাপড্রাগন নামে ভারতে ৭৩০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে।

এমনকি ইলেক্ট্রনিক্স প্রডাক্ট নির্মাণকারী সংস্থা হিটাচি ভারতে ১.২ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে। এছাড়াও গুগল ভারতে ১০ বিলিয়ন বিনিয়োগ করেছে। বিশ্বের ৪ টি বড়ো বড়ো টেক জায়ান্ট ১ সপ্তাহের মধ্যে ভারতে বড়ো মাত্রায় বিনিয়োগ করেছে।