আধার কার্ড না দেখালে সেলুনে কাটা যাবে না চুল-দাড়ি! জারি নতুন নিয়ম

আধার নেই? তাহলে এই যাত্রায় আপনার চুল এবং দাড়ি কাটা হবে না। আধার ছাড়া কাউকে সেলুন বা পার্লারে ঢুকতে দেওয়া যাবে না। তামিলনাড়ু সরকারের এই নিয়মের অধীনে নাজেহাল সেলুনের মালিকের। ১ জুন আনলক করার প্রথম পর্যায়ে সেলুন বা পার্লার খোলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে তবে তামিলনাড়ু সরকার সেখানে বেশ কয়েকটি শর্ত আরোপ করেছে। এটি অবহিত করা হয়েছে যে আপনি সেলুন, পার্লার, স্পা যেখানেই যান আধার কার্ডটি দেখানো উচিত। অন্যথায় কোনও পরিষেবা মিলবে না।

এতে সমস্যা আরও বেড়েছে। অনেক গ্রাহক আধার কার্ড ছাড়াই চুল কাটাতে এসেছেন এবং সেলুন মালিকরা আধার নম্বর লিখতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। একজন সেলুনের মালিক বলছেন, ‘আধার নম্বর লিখে সবাইকে সেলুনে প্রবেশ করতে দেওয়াটা একটু বাড়াবাড়ি হয়ে উঠছে। সরকারকে এই বিধি পরিবর্তন করার অনুরোধ করব।

স্যান্ডার্ড অপরেটিং প্রসিডিওর অনুসারে, এই নিয়মের ভিত্তিতে সেলুন-স্পা বা পার্লারে আধার নম্বর বাধ্যতামূলক হয়ে পড়েছে। এই সমস্ত দোকানদারকে এর মাধ্যমে নামের তালিকা বজায় রাখতে হবে। করোনার যত্ন নেওয়ার জন্য সরকার এ জাতীয় পদক্ষেপ নিয়েছে।

রাজ্য সরকার 24 মে থেকে তামিলনাড়ুর অন্যান্য জেলাগুলিতে সালুন খোলার অনুমতি দিয়েছে। তবে আনলকের প্রথম পর্বে এটি পুরো চেন্নাই জুড়েই খুলতে দেওয়া হয়েছিল। আধার নম্বর ছাড়াও আরও কিছু বিধি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যেমন মুখোশ পরা, হাতের স্যানিটাইজার ব্যবহার করে। সেলুন কর্মীদের অবশ্যই গ্লাভস পরতে হবে। রুমাল বা ব্লেডগুলি পুনর্ব্যবহার করা যাবে না। তোয়ালে একবার ব্যবহার না করে ধোয়া ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

যদি কোনও কর্মচারীর জ্বর বা সর্দি বা কাশি হয় তবে তাদের কাজ করে আসতে দেওয়া উচিত নয়। মালিককে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সেলুন বা পার্লারে ভিড় করা যাবে না। 50 শতাংশ মানুষ একসাথে একটি নির্দিষ্ট সেলুন বা পার্লারে থাকতে পারেন।