লাইফ স্টাইল

জীবনে সুখী হতে চাইলে এই তিন শ্রেণীর মানুষকে কখনোই বিয়ে করবেন না

প্রত্যেক মানুষের জীবনে বিয়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাই তিন ধরনের মানুষদের কোনদিনই বিয়ে করা উচিৎ নয়।

এক: ক্যারিয়ার বলতে যারা শুধু ডিগ্রী কেই বোঝে এমন ছেলে মেয়েদের এড়িয়ে চলুন কারণ তাদের কাছে পরিবার বাবা-মা আত্মীয়-স্বজন এই সম্পর্ক গুলির গুরুত্ব খুবই কম। তাদের কাছে ডিগ্রী টাই সব। এই ধরনের ছেলে মেয়েদের কাছেফ্যামিলি ডাইমেনশন হলো ক্যারিয়ারে ডাইমেনশন এর ফলে তারা সংসারের পক্ষে খুবই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠে। এরপর ছোট ছোট কথায় ঝামেলা এবং বিচ্ছেদ পর্যন্ত দেখা যায়।

দুই: সেই সমস্ত মানুষদের এড়িয়ে চলবেন যারা বহু নারী বা পুরুষের সান্নিধ্যে আসেন এবং খুবই ঘনিষ্ঠ ভাবে মিশতে পারে। কারণ তারা কোনো নির্দিষ্ট একজনের প্রতি মন স্থির করতে পারে না। বিবাহের পরে ছোটখাটো কোনো পারিবারিক ঝগড়া বা অশান্তিতে তারা বাইরের নারী বা পুরুষের কাছে চলে যায় এবং তাদের কাছ থেকে সুখ খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করে‌। এর ফলে পরকীয়া সম্পর্কের সৃষ্টি হয়।

এই ধরনের মানুষ কখনোই কোনো একজনের হতে পারে না। তারা নদীর স্রোতে গাঁ ভাসানোর মতো করে চলতে থাকে। তাদের কোনো নির্দিষ্ট লক্ষ্য নেই। এই সমস্ত লোকের সাংসারিক ঝগড়া কে কেন্দ্র করে অনেকেই তাদের ফায়দা লুটে এবং কখনো কখনো তারা নিজেরাও তাদের নিজেদের দুয়ার খুলে দেয়। তাই এদের কে এড়িয়ে চলাই শ্রেয়।

তিন: এমন কাউকে কখনো বিয়ে করবেন না যারা অতীতে কারণ নায়ক বা নায়িকা হওয়ার ঘটনা গর্বের সঙ্গে আপনার কাছে জাহির করে। সাধারণত দেখা যায় ভালো ছেলে মেয়েরা কখনোই কারো গার্লফ্রেন্ড বা বয়ফ্রেন্ড হয় না তারা সিঙ্গেল থাকতেই বেশী পছন্দ করে। এই সমস্ত ছেলেমেয়েকে আপনি বিয়ে করলে ভবিষ্যতে তিন ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। যেমন:

১: আপনার সঙ্গী হয়তো সাময়িক ভাবে তার পূর্ব সঙ্গীকে ভুলে যাবে এবং আপনাকে ভালোবাসার চেষ্টা করবে বা ভালোবাসার অভিনয় করবে। যার ফলে আপনি সারা জীবনের জন্য সত্যিকারে ভালোবাসা থেকে দূরে থাকবেন।

২: সে লোক সমাজে ভালো দেখার জন্য আপনার সঙ্গে রোবটের মতো সংসার করবে। যেখানে কোনো ভালোবাসা থাকবে না, থাকবে শুধু দায়িত্ব।

৩: সংসার জীবনে যদি আপনার সঙ্গে কোন ঝগড়া-ঝাটি হয় বা আপনার ভালবাসার পারদ ওঠানামা করে তবে সেই পরকীয়া সম্পর্কে যাওয়ার চেষ্টা করবে। এবং এই সম্পর্ক ধীরে ধীরে বিচ্ছেদের দিকে এগিয়ে যাবে।

তাই আগে মানুষটাকে জানুন, বুঝুন তারপর সম্পর্কের দিকে এগোন।

Related Articles

Back to top button