লকডাউনে কেন্দ্রীয় নয়া নির্দেশিকায় কোন কোন ক্ষেত্রে মিলছে ছাড়

সংক্রমণ ঠেকাতে দ্বিতীয় দফায় ৩রা মে পর্যন্ত লকডাউনের দিন সংখ্যা বৃদ্ধি হওয়ায় সাধারণ মানুষের আর্থিক সমস্যা ও ভোগান্তি দূর করতে কিছুটা শিথিল করল লকডাউন। দেশের মানুষের কথা চিন্তা করেই দ্বিতীয় দফার লকডাউনে মিলবে আরো বেশ কিছু পরিষেবা।

মঙ্গলবার রাতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক তরফে জারি হয়েছে নতুন নির্দেশিকা। তাতে ঘোষণা হয়েছে লকডাউনে বেশকিছু ছাড়। ছাড়ের আওতায় পড়েছে মোবাইল রিচার্জ এবং প্রিপেড সেন্টার গুলি, গ্রীষ্মকাল পড়ায় তাপমাত্রা দিন দিন বাড়ছে তাই ইলেকট্রিক সরঞ্জামের মধ্যে ফ্যানের দোকান খোলা রাখার ক্ষেত্রে মিলছে ছাড়। এবং ছাড় পাচ্ছেন অসুস্থ বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের দেখাশুনা করেন যে সব আয়া, তারা কাজ শুরু করতে পারবেন। এছাড়াও পড়ুয়াদের সুবিধার্থে সমস্ত রকম পাঠ্যবই খোলা রাখার ক্ষেত্রে রয়েছে ছাড়।

খাদ্যসামগ্রীর সাথে যুক্ত শহর অঞ্চলে চাল কল, ডালকল এবং বেকারি অর্থাৎ পারুটি কারখানা ও গম কলগুলি খোলা রাখার ক্ষেত্রে রয়েছে ছাড়। এবং কৃষিকাজ, মৌমাছি পালন, বাগান ইত্যাদি ক্ষেত্রে গুদাম গুলিকে ছাড়ের আওতায় আনা হয়েছে। এইসব কাজে যুক্ত গবেষণাগার গুলিকে আনা হয়েছে ছাড়ের আওতায়।