বিনোদন

বাড়ির পার্টিতে মাদকের ছড়াছড়ি, নেশায় মত্ত বহু তারকা, অবশেষে মুখ খুলতে বাধ্য হলেন করন জোহর

মাদকের ছড়াছড়ি ছিল তাঁর বাড়ির পার্টিতে। সেই পার্টিতে নেশায় চুর হয়েছিলেন রণবীর সিং, ভিকি কৌশল, দীপিকা পাড়ুকোন, শাহিদ কাপুর, বারুন ধাওয়ান সব বলিউডের প্রথম সারির অভিনেতা-অভিনেত্রীরা। সব অভিনেত্রী মুখে মাদকের ছাপ এবং ঢুলুঢুলু চোখ ছিল। এমনকি একটি ফুটে যে ভিকি কৌশলের সামনের টেবিলে পাউডারের মত দেখতে মাদকদ্রব্য দেখা গেছে। এই পাউডারের মত দেখতে মাদকদ্রব্যের ভিডিও ফুটেজটি প্রায় ভারতের সকল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ব্যক্তির দেখেছেন। এই ভিডিও ফুটেজটি সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়াও সংবাদ মাধ্যমেও দেখানো হয়েছে। করণ জোহরের বাড়িতে ছিল সেই পার্টি এমনটাই দাবি করা হয়েছে। এবং অভিযোগ ওঠে সেই পার্টিতে মাদকের ছড়াছড়ি ছিল।

করণ জোহরের দিকে সুশান্তের মৃত্যু কে নিয়ে একাধিক আঙ্গুল ওঠে। অভিযোগ উঠেছে তিনি নাকি নেপোটিজম এর প্রচারক। এমনকি করণ জোহরকে মুভি মাফিয়া বলেছেন অনেকে। স্বজনপোষণের অভিযোগ নতুন নয় বলিউডে। বাঁধ ভেঙে গেছে সুশান্তের মৃত্যুর পর। অনেকেই পথে নেমেছেন দীর্ঘদিনের এই প্রথাকে ভাঙতে। করণ জোহরের কুশপুতুল পোড়ানো হচ্ছে এই আন্দোলনে। নেপোটিজম অপদেবতার মতো তাকে তুলে ধরা হয়েছে। তেমন কিছুই বলেনি করণ জোহর এসব দেখার পরও। করণ জোহর সুযোগ করে দিয়েছেন বহু তারকাদের সন্তানদের এমনটাই অভিযোগ নেটিজেনদের। অনেকের মতে করণ জোহার সুশান্তের মতো প্রতিভাবান দের পিষে দিয়েছেন। এর আগেও বহু বিতর্ক ধাওয়া করেছে করণ জোহরকে। তার একটি জলজ্যান্ত প্রমাণ কফি উইথ করন।

এরপর মুখ খুলতে বাধ্য হলেন করণ। তিনি টুইট করে বলেন, তিনি কাউকে কোনদিন মাদক গ্রহণের জন্য উৎসাহিত করেন নি এবং তিনি নিজেও কোনদিন মাদক গ্রহণ করেননি। মাদক নিয়ে কখনো ছড়াছড়ি হয়নি তার বাড়িতে, এমনটাই জানান করণ। তার বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেন তিনি। তিনি এই রকম অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেছিলেন ২০১৯ সালেও। করণ বলেছেন, ”একের পর মিথ্যে অভিযোগ ও ভুল খবরে আমার, ধর্ম প্রোডাকশন ও আমার পরিবারের উপর প্রভাব পড়ছে। আমাদের ঘৃণা ও উপহাসের পাত্র হিসাবে দেখা হচ্ছে।”

একাধিক মিডিয়া চ্যানেল দেখাচ্ছেন ‘ধর্ম প্রোডাকশন ম্যানেজার নাকি ক্ষিতিজ প্রসাদ’ একথা সম্পূর্ণ মিথ্যে বলে জানালেন করণ। তিনি এটাও জানালেন ধর্ম প্রোডাকশনের কর্মী নয় অনুভব চোপড়াও। ব্যক্তিগতভাবে অনুভবকে চেনেন না করণ। অনুভব মাত্র দুই মাস কাজ করেছিলেন ধর্ম প্রোডাকশনের সঙ্গে। ক্ষিতিজ ২০১৯ সালে এমন একটি প্রোডাকশনের কাজ করেন যা রিলিজই করেনি।

Related Articles

Back to top button