লাইফ স্টাইল

ভাত ও রুটির সাথে খেতে বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন অসাধারণ স্বাদের এই আলুর তরকারি, শিখে নিন রেসিপি

মাত্র এই কয়েকটা উপকরণ দিয়ে বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু নিরামিষ আলুর তরকারি। জমে যাবে ভাত বা রুটির সাথে।

Advertisements

Advertisements

ভোজনরসিক বাঙালির প্রিয় সবজির মধ্যে অন্যতম হলো আলু। আলুর তৈরী যেকনো পদ খেতে পছন্দ করেন তাঁরা। পেয়াঁজ রসুন সহযোগে যদি রান্না করা যায় তাহলে তো কথাই নেই। তবে পেয়াঁজ রসুন ছাড়াও সম্পূর্ণ নিরামিষ আলুর তরকারিও বেশ সুস্বাদু হয়।

Advertisements

Advertisements

উপকরণ :
১. আলু
২. আদা বাটা
৩. টমেটো বাটা
৪. ক্যাপসিকাম বাটা
৫. হলুদ গুঁড়া
৬. লঙ্কাগুঁড়ো স্বাদমতো
৭. গরম মশলা গুঁড়ো
৮. লঙ্কাবাটা স্বাদমতো
৯. সাদা তেল
১০. কালো জিরে
১১. শুকনো লঙ্কা
১২. নুন মিষ্টি

প্রণালী :

রান্না শুরু করার আগে ৫ থেকে ৬টি আলুকে ভালো করে ধুয়ে খোসা ছাড়িয়ে টুকরো করে কেটে রাখতে হবে। কড়াইতে দিয়ে দিতে হবে ৪ চামচ সাদা তেল। সাদা তেলের পরিবর্তে সর্ষের তেলে রান্না করলেও স্বাদ অপরিবর্তিত থাকবে। তেল ভালো করে গরম হয়ে গেলে ফোড়নের জন্য দিতে হবে কয়েকটা শুকনো লঙ্কা এবং ১ চা চামচ কালো জিরে। ফোড়ন ভালো করে নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ২ টেবিল চামচ আদা বাটা, ৪ টেবিল চামচ টমেটো বাটা, ৩ টেবিল চামচ ক্যাপসিকাম বাটা।

সব উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে রান্না করতে হবে। এর পরে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১ টেবিল-চামচ হলুদ গুঁড়া, স্বাদমতো লঙ্কাগুঁড়ো এবং নুন আর অল্প পরিমানে চিনি। নিরামিষ রান্নায় চিনি ব্যবহার করলে এর স্বাদ আরো বেড়ে যায়। সমস্ত মশলাকে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে। মশলা কষানোর পরে এর মধ্যে টুকরো করে কেটে রাখা আলু দিয়ে দিতে হবে। আলুর সাথে মশলা ভালো করে মিশিয়ে অল্প আঁচে ভালো করে রান্না করে নিতে হবে।

এর পরে সামান্য জল দিয়ে কড়াইয়ের ঢাকনা বন্ধ করে দিতে হবে। আলু ভালো করে সেদ্ধ হয়ে গেলে ঢাকা খুলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ধনেপাতা কুচি এবং চিরে রাখা কাঁচালঙ্কা। নামানোর আগে এক চিমটে গরম মশলা ছড়িয়ে দিতে হবে। তাহলেই তৈরী হয়ে যাবে নিরামিষ আলুর দুর্দান্ত এই পদটি।

Related Articles