দু’ভাগে বিভক্ত আজ ‘খড়কুটো’ পরিবার! মিষ্টি বৌদি-গুণগুণের ঝগড়ার মাঝে পড়ে গেল পুচু সোনা

243

যৌথ পরিবারের গল্প নিয়ে শুরু হয়েছিল স্টার জলসার(Star jalsha) খড়কুটো(khorkuto) ধারাবাহিকটি। কিন্তু বর্তমানে এই ধারাবাহিকে অবাস্তব এবং অতিরঞ্জিত কাহিনী দেখে দর্শকরা রীতিমতো বিরক্ত! যৌথ পরিবারের গল্প হাসি, মজা, ঠাট্টা থেকে এই ধারাবাহিকে সম্প্রতি এসেছে গুনগুনকে নিয়ে একটি অন্যরকম মোড়। যেখানে দেখানো হচ্ছে যে গুনগুনের বড় জা মিষ্টির সদ্যজাত সন্তান পুচু সোনার প্রতি ‌ অদ্ভুত রকমের একটি অধিকার বোধ ফলাচ্ছে গুনগুন এবং সেই একরত্তি শিশুকে সে তার মায়ের কাছেও ছাড়ছে না! তার এই অতিরিক্ত অধিকারবোধ দেখে পরিবারের সকলে গুনগুনের প্রতি বিরক্ত! এমনকি বিরক্ত হয়ে উঠেছে দর্শকরাও।

প্রথম দিকে পরিবারের সকলেই গুনগুনকে বোঝাতে শুরু করেছিল, কিন্তু সকলেই তাদের প্রয়াসে ব্যর্থ হয়েছে। মিষ্টির সন্তানকে গুনগুন এক মুহূর্তের জন্যও কাছছাড়া করতে চায়না। অন্য দিকে ধৈর্যের বাধ ভেঙেছে মিষ্টির‌ও, সে পরিষ্কার বলে দিয়েছে যে, যতক্ষণ না সে তার মেয়েকে পুরোপুরি ভাবে নিজের কাছে পাচ্ছে ততক্ষণ অবধি সে তার মেয়েকে স্তন্য পান করাবে না। গুনগুন পুরোটাই যেন নিজের মতো করে বুঝে নেয়। এমনকি গুনগুনের কাছ থেকে মেয়েকে ফেরত পেতে সে যে আইনের সাহায্য‌ও নেবে তাও সে জানায়। কিন্তু এ নিয়ে গুনগুনের কোনো রকম কোনো প্রতিক্রিয়া নেই।

এর মধ্যেই দেখা যায় পুচু সোনাকে খাওয়ানো নিয়ে মিষ্টির সাথে গুনগুনের ঝগড়ার মাঝে আচমকাই গুনগুনের কোল থেকে মেঝেতে পড়ে যায় সে। এই নিয়ে হইচই কান্ড শুরু হয়ে গেছে পরিবারে। মিষ্টির অভিযোগ বাড়ির সকলের প্রশয়ে আজ এমন ঘটনা ঘটিয়েছে গুনগুন। বাবিনের মাও জানিয়ে দেয় যে গুনগুন কে বাবিন যেন বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দিয়ে আসে। এমন বৌমার তার আর দরকার নেই। একইকথা বলেছেন বড়মা এবং জেঠাইও। বাবিন তো বলেই দিয়েছে,“বিয়েটা সে নিজের ইচ্ছায় করতে চাইনি। জেঠাইয়ের জোর করার ফলে করতে হয়েছিল।”

অন্যদিকে দেখা যায় যে মাথায় চোট পেয়ে ইতিমধ্যেই দুইবার বমি করেছে পুচুসোনা। ডাক্তার তাকে বলেছে হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে, কিন্তু হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে তার বাবা-মায়ের সই লাগবে, অন্যদিকে হাসপাতালের কেবিনে ও মা ছাড়া আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে না- এই কথা শুনে কান্নায় ভেঙে পরে গুনগুন। কোন দিকে মোড় নেবে এবার গুনগুন বাবিনের সম্পর্ক? মিষ্টির পরবর্তী পদক্ষেপ ই বা কী হবে তা দেখা যাবে আগামী পর্বে। তবে আপাতত ধারাবাহিকের এই গল্পে এবং গুনগুনের এই পাগলামো দেখে বিরক্ত হয়ে পড়েছেন মানুষজন, আর এর ফলে ট্রোলিং এর শিকার হচ্ছেন অভিনেত্রী তৃণা সাহাও(Trina Saha)

আরও পড়ুন:   সুখের সংসারে ভাঙনের সুর, ভেঙে যাচ্ছে সুস্মিতা-রোহমানের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক