নিউজবিনোদন

ভেঙে ফেলা হবে মিঠুন চক্রবর্তীর বিলাসবহুল রিসর্ট, কড়া নির্দেশ দিল শীর্ষ আদালত

হাতিদের চলাচলে অসুবিধা হয় তামিলনাড়ুর নীলগিরির কাছে মুদুমালাইয়ের রিসর্টগুলির জন্য। শীর্ষ আদালত নির্দেশ দেন নীলগিরি অঞ্চলের এলিফ্যান্ট করিডর রিসর্টগুলি ভেঙে ফেলতে হবে যাতে বাস্তু তন্ত্রের কোন ক্ষতি না হয়। ২০১১ সালে মাদ্রাজ হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছিল সেই একই রায় দিয়ে পুনরায় শীর্ষ আদালত নীলগিরি অঞ্চলের রিসর্ট ভাঙার নির্দেশ দেন।

মিঠুন চক্রবর্তীর রিসর্ট ও রয়েছে নীলগিরির মুদুমালাইয়ের ওই রিসর্টগুলির মধ্যে। মিঠুন চক্রবর্তী শীর্ষ আদালতে দারস্ত হন ২০১১ সালে মাদ্রাজ হাইকোর্টের ওই রায়ের পর। কিন্তু অবিলম্বে নীলগিরিতে যে এলিফ্যান্ট করিডর রিসর্টগুলি ভেঙে ফেলার আদেশ দেন শীর্ষ আদালত।

খবর অনুযায়ী জানা গেছে এই এলাকার হাতিদের চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে। তাই শীর্ষ আদালত নির্দেশ দেন হাতিদের চলাচলের জায়গা করে দিতে হবে নীলগিরির এলিফ্যান্ট রিসর্ট সংলগ্ন এলাকায়। সেখানকার বন্যপ্রাণও ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে রিসর্টে অতিরিক্ত পর্যটকদের আনাগোনার কারণে। তাই শীর্ষ আদালত নীলগিরি অঞ্চরলের ওই এলিফ্যান্ট রিসর্টগুলি ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয় জঙ্গল এবং বন্যপ্রাণ রক্ষার তাগিদে।

নির্দিষ্ট আইন মেনেই নীলগিরি অঞ্চলে রিসর্ট তৈরি করেছেন, এমনটিই দাবি করেন মিঠুন চক্রবর্তী সহ বাকি রিসর্টের মালিকরা। শীর্ষ আদালত কোন দাবি মানতে রাজি নন আবেদনকারীদের। আদালতের তরফ থেকে জানানো হয়েছে রিসর্টগুলি ভেঙে ফেলার পাশাপাশি আবেদনকারীদের জন্য একটি পৃথক কমিটি গঠনের করা হবে। ওই অঞ্চলে রিসর্টগুলিকে নতুন করে পুরর্গঠন করা হবে যদি ওই নির্দেশ দেয় তবে। খবর অনুযায়ী জানা গেছে স্থানীয় অনেক মানুষের জীবন চলে নীলগিরি অঞ্চলের রিসর্ট গুলির জন্য।

Related Articles

Back to top button