চীনকে উচিত শিক্ষা দিতে সেনার পাশে লাদাখবাসী, দুর্গম পাহাড় পেরিয়ে পৌঁছে দিচ্ছে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র

চীনকে উচিত শিক্ষা দিতে সেনার পাশে লাদাখবাসী, দুর্গম পাহাড় পেরিয়ে পৌঁছে দিচ্ছে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র

ভারতীয় সেনার পাশে এবার দাঁড়িয়েছে লাদাখবাসী। চীন যেভাবে ভারতের জমি আত্মসাৎ করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে, সেখানে চীনকে শায়েস্তা করতে এগিয়ে এসেছে লাদাখবাসী। গ্রামের প্রায় শতাধিক যুবক ও স্বেচ্ছাসেবক ভারতকে সাহায্য করবে বলে একজোট হয়েছে। ভারতীয় সেনাদের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম পিঠে করে নিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন লাদাখবাসী। আর এর জন্য তাঁরা বেঁচে নিয়েছেন কালাটোপ পাহাড়ের এলাকাকে। কারণ ওই এলাকা একটু নিলিবিলি। আর ওখানে কোন সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়নি।

চীনকে উচিত শিক্ষা দেবার জন্য ভারতের এমনকি কিছু বিশেষ জিনিসের প্রয়োজন ছিল। যা ভারতীয় সেনার কাছে পৌঁছে দিয়েছে লাদাখের এই স্বেচ্ছাসেবকরা। লাদাখবাসী নিজে থেকেই ভারতীয় সেনাকে সাহায্য করবার জন্য এগিয়ে এসেছে। প্যাংগং লেকের বাসিন্দা এবং টাঙ্গসে আসনের কাউন্সিলর তশি নামগিয়াল জানিয়েছেন যে স্থানীয় প্রায় ১০০ যুবক অত্যন্ত গর্বের সাথেই সেনাদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছে। তাঁদের জন্য প্রয়োজনীয় শয্যা ও অন্যান্য জিনিস সরবরাহ করতে এগিয়ে যাচ্ছেন।

যুবকদের পাশাপাশি বৌদ্ধ ভিক্ষু, মহিলা এবং কর্মীরাও সেনাদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছে। শুধু কালাটপ পাহাড় নয়, গুরুদা পাহাড়ের আশেপাশের গ্রাম থেকে স্বেচ্ছাসেবকরা এগিয়ে এসেছে। চুষুল গ্রামের মতই মেরাক গ্রামের মানুষেরাও এসেছে। তারা সেনাদের জল এবং প্রয়োজনীয় পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে। তারা এই খাড়া পাহাড়ি পথে ৩ ঘণ্টা পথ অতিক্রম করতেও পিছপা হচ্ছেন না। বরং এত কষ্ট করেও চীনকে শায়েস্তা করার জন্য ভারতীয় সেনাদের সাহায্য করছেন।