সর্বশেষ

শেষ হল দীর্ঘদিনের পথচলা, বন্ধ হল জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘কৃষ্ণকলি’, বিদায়বেলায় আবেগঘন নিখিল-শ্যামা

প্রায় চার বছরের সফরের পর অবশেষে শেষ হয়েছে জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘কৃষ্ণকলি’। ২০১৮ সালের ১৮ই জুন পথচলা শুরু হয়েছিল এই ধারাবাহিকের। গত রবিবার অর্থাৎ ৯ই জানুয়ারি ধারাবাহিকের অন্তিম পর্ব পর্দায় সম্প্রচারিত হয়েছে। ১২০২ পর্বের এই ধারাবাহিক টিআরপি তালিকায় নিয়মিত স্থান দখল করতো। একসময় বেশকিছু সপ্তাহ টিআরপি (TRP) তালিকায় প্রথম স্থান লাভ করেছিল ‘কৃষ্ণকলি’।

ধারাবাহিকে নীল ভট্টাচার্য্য (Neel Bhattacharya) ওরফে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র ‘নিখিল’-এর বেশ কয়েকদিন দেখা মিলছিল না। অন্তিম পর্বে অবশেষে একসাথে দেখা গেছে শ্যামা ও তাঁর স্বামী নিখিলকে। শেষ পর্বে এক গানের অনুষ্ঠানে শ্যামাকে গান গাইতে শোনা গেছে। চমক হিসেবে শ্যামার সাথে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন গায়িকা অদিতি মুন্সি। মূলত শ্যামার গাওয়া বেশিরভাগ গানের নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী তিনিই ছিলেন।অন্তিম পর্বের শ্যুটিং সেটে স্বাভাবিকভাবেই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তাঁরা।

‘নিখিল’ চরিত্রের অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য্য ও ‘শ্যামা’ চরিত্রের অভিনেত্রী তিয়াসা (Tiyasha Roy) সংবাদমাধ্যমের উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন ধারাবাহিকের এতদূর পথচলা অবশ্যই এক বিশাল ব্যাপার। তাঁরা কী অনুভূতি প্রকাশ করবেন তা বুঝতে পারছেন না! একদিকে যেমন এতদূর সফলভাবে পথ চলায় তাঁরা উচ্ছ্বসিত, তেমনই ধারাবাহিক শেষ হয়ে যাওয়ার জন্য স্বাভাবিকভাবে তাঁদের মন ভারাক্রান্ত হয়ে রয়েছে।

নীলের বক্তব্য,”প্রায় চার বছর আমরা একসঙ্গে কাটিয়েছি, একটা পরিবারের মতো কাটিয়েছি, একে অপরকে সহ্য করেছি। কিন্তু হ্যাঁ, ঝগড়া করিনি। আজ অবধি আমরা ঝগড়া করিনি। খুব মজা করেছি।” নীলের এই কথায় সম্মতি জানিয়ে তিয়াসা বলেছেন হয়তো সেই কারণেই তাঁরা এতোগুলি অ্যাওয়ার্ড জয় করতে পেরেছেন। তাঁদের এই রসায়নের কারণেই হয়তো তাঁরা ‘বেস্ট জুটি’ হিসেবে উপাধি পেয়েছেন। নীল ও তিয়াসার মতে ধারাবাহিকের সাথে সাথে ব্যক্তিগত জীবনেও তাঁরা এই দীর্ঘ সময়ে পরিবর্তিত হয়েছেন। দর্শকদের অনেকেই নাকি ‘কৃষ্ণকলি’ ধারাবাহিক শেষ হয়ে যাওয়ার জন্য ক্ষুব্ধ হয়েছেন। সর্বশেষে তাঁরা এত ভালোবাসা দেওয়ার জন্য ও বছরের পর বছর ধরে এইভাবে পাশে থাকার জন্য দর্শকদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন।

আরও পড়ুন:   দুর্দান্ত নাচের পাশাপাশি রান্না করতেও পারদর্শী পান্তা ভাতের কুন্ডু, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

Related Articles

Back to top button