কলকাতায় হাজির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, জানুন কোন কোন এলাকা ঘুরবেন

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সময় মতো কলকাতায় পৌঁছোলেন। এক ঘন্টা দীর্ঘ বিমান ভ্রমণে মুখ্যমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী আমফান বিধ্বস্ত অঞ্চল ঘিরে নেবেন। ক্যানিং এবং গোসাবার মতো অঞ্চল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পরিদর্শন করবেন।

বিভিন্ন অঞ্চল এখনও রাস্তা বিধ্বস্ত, বিদ্যুৎ পরিষেবাগুলি সর্বনাশিত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই ধ্বংসের সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরতে চান এই পরিস্থিতি দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আবারও আর্থিক সহায়তার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিধ্বস্ত বাংলা সফরের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আহ্বান জানিয়েছেন। তার ডাকে সাড়া দিয়ে, মোদী রাজ্যের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে নিজেই রাজ্যে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, শুক্রবার মমতা মোদীর আগমনের 20 মিনিটের আগে বিমানবন্দরে পৌঁছেছেন।

মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী এক ঘন্টা আগে কলকাতা বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছেন। রাজ্যে পৌঁছানোর পর মুখ্যমন্ত্রী তাঁর সাথে বৈঠক করতে পারেন তারপরে দুজনই বিমানের মাধ্যমে ঘূর্ণিঝড় বিধ্বস্ত অঞ্চল ঘুরে দেখবেন।

মোদী ও মমতা আকাশপথে ক্ষতিগ্রস্থ অঞ্চলগুলি পরিদর্শন করবেন প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে বসিরহাটে যাবেন। বসিরহাট কলেজে ২ টি হেলিপ্যাড নির্মিত হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী মোদীর সাথে আমফান বিপর্যয়ের বিষয়ে বৈঠক করবেন।

বাংলার বৃহৎ অঞ্চল আম্ফান দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে। এ ছাড়া ওড়িশায়ও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। নরেন্দ্র মোদী আজ এই দুটি রাজ্যের ঘূর্ণিঝড় বিধ্বস্ত অঞ্চল পরিদর্শন করতে আসছেন। তিনি প্রথমে কলকাতায় আসবেন। সকাল দশটা থেকে দশটা সোয়া দশটার মধ্যে তারপরে তিনি রাজ্য সরকারের সাথে বৈঠক করবেন। বিধি মোতাবেক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিমানবন্দর থেকে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন।

তারপরে হেলিকাপ্টারে পুরো বিধ্বস্ত অঞ্চল ঘুরে দেখবেন। তারপরে তিনি দুপুর আড়াইটার মধ্যে উড়িষ্যা যাবেন। তিনি ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের সাথে সেখানে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবেন। ২৯ শে ফেব্রুয়ারি নরেন্দ্র মোদী উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজ এবং চিত্রকোট গিয়েছিলেন। তারপরে প্রায় ৮৩ দিন পর আজ তিনি বাংলায় আসছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের একটি প্রতিনিধি দল উড়িষ্যা এবং পশ্চিমবঙ্গ সফর করবে, জানিয়েছেন ডিরেক্টর জেনারেল এস এন প্রধান।

বৃহস্পতিবার, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আম্ফান-ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলে ক্ষতিপূরণের জন্য এক হাজার কোটি টাকা রেখেছিলেন। বাংলায় এই ঝড়ে প্রায় ৭২ জন মারা গেছে। তিনি মৃত ব্যক্তির ক্ষতিপূরণ হিসাবে আড়াই লাখ টাকা দেবেন বলে জানিয়েছেন। মমতা প্রধানমন্ত্রীকে বর্তমান পরিস্থিতি দেখার জন্য বাংলায় আসার অনুরোধ করেছিলেন। সেই প্রতিশ্রুতি রাখতে আজ প্রধানমন্ত্রী আসছেন।