অবশেষে গ্ৰেফতার করা হলো সুশান্ত মৃত্যুকান্ডের মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তীকে

অবশেষে গ্রেফতার হলে সুশান্ত কেসে মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী। NDPS আইনের ৬৭ নম্বর ধারায় দশ কবুল করলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। রিয়ার বয়ানে উঠে এসেছে বহু তারকার নাম যারা রীতিমত মাদক কান্ডের সঙ্গে যুক্ত। আজ বিকেলেই হবে রিয়ার মেডিক্যাল টেস্ট।

প্রসঙ্গত, সুশান্ত মৃত্যু রহস্যে ড্রাগ বা নিষিদ্ধ মাদক পাচার চক্রের হদিশ পায় ইডি। আর তাতে নাম জড়িয়েছে সুশান্তের বান্ধবী অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর। বেশ কয়েক দিন ধরেই NCB দফতরে লাগাতার জিজ্ঞাসাবাদ চলছে রিয়া চক্রবর্তীকে। কিন্তু এবার যেন কেঁচো খুড়তে গিয়ে বেরিয়ে এক কেউটে। সুশান্তের মৃত্যুতে ড্রাগ মামলায় প্রকাশ্যে তাবড় তাবড় বলিউড সেলেবদের নাম।

উল্লেখ্য, এক হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকেই নিষিদ্ধ মাদক পাচার চক্রের হদিশ পায় ইডি। সেই সমস্ত চ্যাটে মারিজুয়ানা, এমডিএমএ, সিবিডি ওয়ালের মতো বিভিন্ন নিষিদ্ধ মাদকের নাম উল্লেখ ছিল। আর সেই চ্যাট গুলি বিনিময় হয়েছিল রিয়া চক্রবর্তী, সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা, জয়া সাহা, ও গোয়ার হোটেল ব্যবসায়ী গৌরব আচার্যর মধ্যে। সেই অনুযায়ী গত শুক্রবার একটানা জিজ্ঞাসাবাদের পর রাত ৯ টা নাগাদ মাদক সেবন ও পাচারের অভিযোগে সৌভিককে গ্রেফতার করে এনসিবি। নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর জেরার মুখে সৌভিক চক্রবর্তী স্বীকার করেছে প্রয়াত অভিনেতা সুশান্তের বাড়িতে রিয়ার নির্দেশেই আনা হত মাদক। আর সেই ড্রাগ কেনা হত স্যামুয়েল মিরান্ডার মাধ্যমেই।সুশান্ত সিং রাজপুতের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকে আটক করে ইডি। আর আজকে গ্ৰেফতার হলেন সুশান্ত মৃত্যু কান্ডের মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী।