বাবা গায়ক হয়েও গান গাইতে দেননি মেয়েকে! নিজের চেষ্টাতেই গায়িকা হয়েছেন নচিকেতার মেয়ে, রইল পরিচয়

180

বাংলায় জীবনমুখি(LIfe oriented) গানের স্রষ্টা নচিকেতা চক্রবর্তী(Nochiketa chakrabarty)। নব্বই এর দশক থেকে আজ ২০২২ পর্যন্ত যার প্রতি মানুষের ভালোবাসা বা ভক্তি কোনোটাই বিলীন হয়নি। তার মেয়ে ধানসিড়ি (Dhanshiri chakraBarty), উঠতি গায়িকা তিনি। জানালেন,বাবা তার গানের জগতে আসা নিয়ে খুব একটা উৎসাহী ছিলেন না। বরং বলতেন স্বেচ্ছায় পেশা নির্বাচন করতে।

ভিন্ন স্বাদের ও ধরার গান গেয়েছেন নচিকেতা। কখনও আধুনিক,গজল, রবীন্দ্র সংগীত আবার সিনেমা – ধারাবাহিকেও গেয়েছেন পাল্লা দিয়ে। তবে নিজের তৈরি স্বতন্ত্র গানগুলি নচির আলাদা পরিচয় তৈরি করে দিয়েছে বাংলা গানের জগতে। নচিকেতার একমাত্র কন্যা ধানসিড়ি। ছেলেবেলা থেকেই শিল্পী পরিবারে বেড়ে ওঠা মেয়েটি আজ পরিচিত গায়িকা। তার গান শোনা গেছে মহানায়িকা, অলিক সুখের মত ছবিতে। বাবার ছত্রছায়ায় বেড়ে উঠলেও বাবা চেয়েছিলেন মেয়ের গানে যেন নচিকেতার মত ভাব না আসে। সে যেন নিজেই সঙ্গীতশিল্পী ধানসিড়ি চক্রবর্তী হয়ে
ওঠে।

আরও পড়ুন:   মেয়ে হবার পর পাল্টে গেলেন বিরাট-অনুষ্কা! বাড়িতে রাখতে চাইছেন না কাজের লোক

প্রকাশিত হয়েছে ধানসিড়ির নতুন গানের অ্যালবাম ” তুমি ছাড়া”(Tumi chara)। আর কয়েকটা দিনের মধ্যেই মুক্তি পাচ্ছে ইন্দ্রজিৎ দের কম্পোজ করা নতুন গানের আরও একটি সিংগেলস “দুনিয়া ডিজিটাল”( duniya digital)। নতুন আরো কয়েকটি গানের অ্যালবাম ও ক্রিয়েটিভ গানের ঝুড়ি নিয়ে আসছে ধানসিড়ি।

আরও পড়ুন:   ভাইয়ের বিয়েতে শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে বিপাকে দেব! 'তোমার বিয়ে কবে হবে?' প্রশ্ন নেটিজেনদের

মাস্টার্স এর ছাত্রী ধানসিড়ি। ঘুরে বেড়ানো তার সখ। একটি সংবাদপত্রে কাজও করেন তিনি। তবে তার শিরায় ধমনীতে গানের কথা আর সুর। ইতিমধ্যেই ধানসিড়ির গান গুলি জনমানসে বেশ ভালই রেসপন্স পেয়েছে। আর ধানসিড়ির সবথেকে পছন্দের লিসেনার তিনি তো বাহবা দিচ্ছেন নিজের মেয়েকে।