রাজ্য

শুরু জনতা কার্ফু, সুনসান রাস্তাঘাট, বাড়িতেই মানুষজন

করোনা ঠেকাতে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেওয়ার সময় রবিবার জনতা কার্ফু পালনের ডাক দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সকলকে এই কার্ফু মান্য করার আবেদন জানান তিনি। নিজেদের স্বার্থে। অপরের স্বার্থে।

করোনা ঠেকাতে এই জনতা কার্ফু দাওয়াইয়ের সময় দেওয়া হয় সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। এই সময়ে সকলকে বাড়িতেই থাকার পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। ১৪ ঘণ্টা বাড়িতে সারা ভারতবাসী থাকলে করোনা ঠেকাতে তা কার্যকরী ভূমিকা নিতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞেরাও।

[আরও পড়ুনঃ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রুখতে স্থগিত উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা]

প্রধানমন্ত্রীর সেই ডাকে সাড়া দিয়ে রবিবার সকাল ৭টা থেকেই শুরু হয়েছে জনতা কার্ফু। সকাল ৭টা না বলে বলা ভাল ভোর থেকেই দেখা গেছে রাস্তা সুনসান।

ধূধূ করছে গোটা শহর থেকে গ্রাম। কলকাতা শহরের রাস্তা হরতালের চেহারা নিয়েছে। এমনিতেই রবিবার সকালে ছুটির আলস্য কাজ করে। ফলে ভোরে তেমন মানুষ রাস্তায় থাকেন না। এদিন আরও নেই। সবই প্রায় বন্ধ। কোনও দোকানপাট সকাল থেকেই খোলেনি।

অনেক বাড়িতে যাঁরা দুধ বিলি করেন তাঁরা আগের দিনই রবিবারের প্যাকেট আগাম দিয়ে গেছেন। কেবল চালু খবরের কাগজ বিলি। এদিন রাস্তায় সরকারি বাস থাকবে বলেই জানা গেছে। থাকতে পারে কিছু বেসরকারি বাসও। মেট্রো রেল চলবে ঠিকই। তবে সংখ্যায় কম। সংখ্যায় কম চলবে লোকাল ট্রেনও। তবে দূরপাল্লার কোনও গাড়ি এদিন ছাড়বে না। জনতা কার্ফু-র সকালের মতই পুরো দিনের চেহারা এক থাকলে হয়তো করোনার বিরুদ্ধে একটা বড়সড় উদ্যোগ সাফল্য পেতে পারে।

Related Articles

Back to top button