ভারতীয় বিজ্ঞানীর এক অনবদ্য আবিষ্কার, মাত্র ৫ টাকায় ৪০ কিমি ছুটবে বাইক

ভারতীয় বিজ্ঞানীর এক অনবদ্য আবিষ্কার, মাত্র ৫ টাকায় ৪০ কিমি ছুটবে বাইক

সভ্যতার অগ্রগতির সাথে সাথে ধীরে ধীরে প্রযুক্তিগত উন্নতি ঘটছে, গতিময় হচ্ছে পৃথিবী। এমন এমন নিত্যনতুন ভাবনার সাথে পরিচয় ঘটছে যা কল্পনাতীত। আর এই প্রযুক্তির উন্নতির সাথে আরো সহজ হয়ে উঠছে জীবনযাত্রা। প্রযুক্তি যে শুধু বিলাসবহুল মানুষের জীবনে পরিবর্তন আনছে তা নয়, সাধারন মানুষের কাছে যে স্বপ্ন অধরা ছিল নিত্যনতুন প্রযুক্তির ফলে তাও পূরন হচ্ছে।

যারা এতদিন পেট্রোলের দামের কথা ভেবে বাইক কিনতে পিছিয়ে আসছিলেন এবার তাদের জন্য রয়েছে দুর্দান্ত এক খবর। সম্প্রতি এক দ্রুতগতির বাইক বাজারে এসেছে যা কিনতে গেলে একফোঁটাও চিন্তা করতে হবে না। কারণ এই বাইক পেট্রোল নয় চলবে হাওয়াতে। শুনতে অবাক লাগলেও এমনই এক অসাধ্য সাধন করেছে লখনউয়ের এক বিজ্ঞানী। ইতিমধ্যে এটি পরীক্ষায় সফলও হয়েছে।

লখনউ এর এই বিজ্ঞানী বহু বছর আগে থেকেই এই আবিষ্কারে ব্রতী হয়েছিলেন। প্রায় ৯ বছর আগে এই এয়ার ইঞ্জিন আবিষ্কার করেছিলেন তিনি। এই ইঞ্জিন এর খরচও বেশ কম বলে জানা গেছে। অ্যালুমিনিয়াম সিলিন্ডার বানিয়ে এয়ার-ও-বাইকে তা লাগানো হয়েছে। টু হুইলারের এতে পাঁচ টাকার হওয়াতেই 40 কিলোমিটার পর্যন্ত যাওয়া যাবে বলে দাবি করা হয়েছে। এই এয়ার ও বাইক ঘন্টায় 70 থেকে 80 কিলোমিটার বেগে চলতে পারে।

এই নয়া এয়ার-ও-বাইক নির্মানের পিছনে ভারত রাজ সিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি এক ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের আসোসিয়েট ডিরেক্টর পদে রয়েছেন। ভারত রাজ সিং তাঁর এই আবিষ্কারের অনুমোদনের জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাবও পাঠিয়েছেন। শুধুই যে সাধারণ মানুষের পকেটের সাশ্রয় হবে তা নয় এয়ার ও বাইক প্রস্তুতকারকদের ধারনা এই বাইক বাজারে এলে জ্বালানি যেমন বাচবে তেমনি গ্লোবাল ওয়ার্মিঙ এর সমস্যা কমবে। তার মতে এই আবিষ্কার বাজারে এলে পঞ্চাশ শতাংশ দূষণ ও কমে যাবে।