নিউজ

শাশুড়ি-জামাই যৌনতায় মত্ত, বাবার সাথে দিদাকে হাতেনাতে ধরল ছেলে

এই জগতে সবচেয়ে পবিত্র সম্পর্ক হলো মা ও তার সন্তানের সম্পর্ক। ঠিক তেমনি আর একটি সম্পর্কের নাম হলো শ্বাশুড়ি-জামাইয়ের সম্পর্ক। আমাদের সকলের কাছে কল্পনারও অতীত জামাইয়ের সঙ্গে শ্বাশুড়ির প্রেমের সম্পর্ক। তবে একথাও ঠিক যে প্রেম মানে না কোনো বাধা, মানে না কোন ব্যবধান, মানেনা কোনো সম্পর্কের বেড়াজাল। কিন্তু অস্বীকার করা যায়না সম্পর্কের সীমারেখাকে।

শ্বাশুড়ি মা তাঁর নিজের মেয়েকে অন্ধকারে রেখে জামাইয়ের সাথে প্রেমে লিপ্ত হয়েছে, সম্প্রতি এমনি একটি ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে। মা ও জামাইয়ের সম্পর্কের কথা তাঁরই মেয়ে টিকটক ভিড়িওর মাধ্যমে সকলের সামনে তুলে ধরে। মেয়ের ৩৩ তম জন্মদিন থেকে এই প্রক্রিয়া শুরু হয়। সেইদিন তাঁর স্বামি স্বীকার করেন যে তিনি অন্য একজন এর সাথে সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছেন। তবে তিনি কল্পনাও করতে পারেনি যে সেই মহিলা তাঁর নিজের মা। এক অজ্ঞাত মহিলা সাথে তার স্বামীর সম্পর্কে কথা শুনে তিনি দুঃখে তার মার কাছে চলে যান।

জিমির আড়ালেই ৫ বছর ধরে সম্পর্ক গড়েছিল তার মা ও স্বামী। জিমির সন্তান এই ঘটনাটি আবিষ্কার করে। জামাই ও শ্বাশুড়িকে অন্তরঙ্গ মুহূর্তে দেখেন জিমির সন্তান। এরপরই ছেলের কাছথেকে সমস্ত সত্য জানতে পারে জিমি।

স্বামী ও তার মা তাকে ৫ বছর ধরে ঠকিয়েছে। মানষিক ভাবে আঘাত পান জিমি সত্য জানার পর। তবুও তাকে এই সম্পর্ক বয়ে নিয়ে যেতে হয় আর্থিক অবস্থা খারাপ থাকায়। জিমি সেই সম্পর্ক ছিন্ন করেন আর্থিকভাবে সচ্ছল হওয়ার পর। তিনি টেনিসিতে নিজের বাড়ি তৈরী করেন। তাতে বিচ্ছেদ সম্পূর্ন হয় ২০১৭ সালে। তিনি এই ঘটনা সামনে আনেন বহুদিন পর। নেটিজেনরা রীতিমতো হতবাক হয়ে গেছে এই ঘটনা শোনার পর। বহু নেটিজেনরা তীব্র নিন্দা করেছেন এই ঘটনার।

Related Articles

Back to top button