খেলাধুলা

দিনমজুরের কাজ করে সংসার চালিয়েছিলেন মা, দুর্দান্ত বোলিং করে IPL কাঁপাচ্ছে ছেলে

ভারতীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট এর মধ্যে সবচেয়ে নামকরা এবং সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য টুর্নামেন্ট হলো আইপিএল। এই ক্রিকেট টুর্নামেন্টের সাফল্যের একমাত্র কারণ তরুণ ক্রিকেটাররা তাদের সবটুকু দিয়ে খেলেন এই টুর্নামেন্টে। বহু প্রতিভাবান ক্রিকেটাররা উঠে এসেছেন এই টুর্নামেন্ট থেকেই।

পরবর্তীকালে এই তরুণদেরই ভারতীয় জার্সি গায়ে ভারতীয় টিমকে প্রতিনিধিত্ব করতে দেখা গেছে। তাঁরা হলো রবীচন্দ্রন অশ্বিন, হার্দিক পান্ডিয়া, ক্রুনাল পান্ডিয়া, জসপ্রীত বুমরাহ এর মতো বিখ্যাত নামিদামি ক্রিকেটাররা।

এরাইতো ভারতীয় ক্রিকেটের মূল স্তম্ভ। এবার টি নটরাজন আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে ফাস্ট বল করে সবার নজর কেড়ে নিলেন। টি নটরাজন দুর্দান্ত বল করেছিলেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ এবং দিল্লি ক্যাপিটালের মধ্যে যে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল তাতে। ২৫ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছিলেন টি নটরাজন। এরপরে নেটিজেনরা তার প্রশংসা শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

তামিলনাড়ুর চিন্নপামটি গ্রামে জন্মেছিলেন এই তরুণ ক্রিকেটার নটরাজন। তার শৈশব কাল খুবই অভাবের মধ্যে দিয়ে কেটেছে। দিনমজুরের কাজ করে সংসার চালাতে রীতিমতো হিমশিম খেয়েছেন এই তরুণের মা। টি নটরাজনকে কিছুতেই তার দারিদ্রতা দমিয়ে রাখতে পারেনি। তিনি ঠিক তার সাফল্যের কাছে পৌঁছে গেছেন।

তিনি এই সাফল্য লাভ করেছেন প্রচণ্ড পরিশ্রম ও গভীর মনোযোগের দ্বারা। নটরাজন খেলার প্রতি ভালোবাসা জন্মায় টেনিস বল ক্রিকেট থেকে।

টেনিস বলে ক্রিকেট খেলতে দেখে কোচ জয়প্রকাশ তাকে তামিলনাড়ু প্রিমিয়ার লিগে খেলার সুযোগ করে দেয়। তিনি তার জার্সিতে জেপি অর্থাৎ জয়প্রকাশ নামটি লিখেন কোচকে সম্মান জানিয়ে। তিনি চান যাতে নটরাজনের পরিবারের তিন ভাইবোনের ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত হয়।

২০১৯ সালে নটরাজনকে ৪০ লক্ষ টাকা দিয়ে কিনে নেয় সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। এইবার তাকে মাঠে নামানো হয়েছে প্রথম একাদশে। এখনো পর্যন্ত নটরাজ ৩টি উইকেট নিয়েছেন।

তিনি বোলিংয়ের দ্বারা সকলকে তার দিকে আকর্ষিত করেছেন। বাড়ি বানিয়েছেন আইপিএলের টাকায় তবে এখনো তিনি গাড়ি কেনেনি। তিনি মনে করেন গাড়ি কেনার থেকে জরুরি চাহিদাগুলি আগে পূরণ করা দরকার।

Related Articles

Back to top button