একধাক্কায় অনেকটা কমলো সোনার দাম, চওড়া হাসি মধ্যবিত্তের মুখে

একবার উঠছে তো একবার নামছে। চলতি বছর সোনার দামে ক্রমাগত দেখা যাচ্ছে হেরফের। বেশ কয়েক দিন বৃদ্ধি থাকার পর গতকালই নেমেছিল সোনার দর। তবে, গতকালের পর আজ বুধবারও অনেকটাই পড়ল সোনার দাম।

করোনা আবহের লকডাউনের প্রথমদিকে অত্যধিক হারে বৃদ্ধি পেয়েছিল সোনার দাম। সোনাপ্রেমিরা একপ্রকার চিন্তায় পড়ে গেছিল যে তারা কিভাবে কিনবে সোনা। যদিও সোনা প্রেমীদের সেই চিন্তার অবসান ঘটিয়ে পরপর দুদিন নিম্নমুখী সোনার দাম।

আসুন দেখে নেওয়া যাক বুধবার ভারতীয় বাজারে সোনার দাম ঠিক কত।এমসিএক্স সূচকে ০.৪% পতনের জেরে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম গিয়ে দাঁড়াল ৫১,১৪০ টাকা। তাহলে বলতেই হয় গত ৫ দিনে এই নিয়ে চতুর্থ বার পড়ল সোনার দাম। আপনাদের মনে করিয়ে দিই গত ৭ অগস্ট সোনার রেকর্ড দামে কপালে ভাঁজ পড়ে ছিল অনেকের। যদিও সেই তুলনায় বর্তমানে ৫,০০০ টাকা দাম কম যাচ্ছে ১০ গ্রামের হিসেবে। তবে, এ দিন স্পট গোল্ড সূচকে সোনার দামে প্রায় কোনও হেরফেরই ঘটেনি। ফলে প্রতি আউন্সের দাম যাচ্ছে ১,৯২৯.৩০ ডলার।তবে, ০.২% পতনের কারণে প্রতি আউন্স রুপোর দাম যাচ্ছে ২৬.৬৬ ডলার। তবে, আন্তর্জাতিক বাজারে এ দিন সোনার দাম স্থিতিশীল দেখা গিয়েছে তাই মনে করা হচ্ছে বিশ্বজুড়ে দুর্বল অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে লগ্নিকারীদের পছন্দের তালিকায় সোনা স্থায়ী জায়গা করে নিয়েছে।

এবার আসা যাক রুপোর কথায়। সোনা প্রেমীদের পাশাপাশি অনেকেই আছেন যারা রূপো পড়তে পছন্দ করেন। তাদের জানিয়ে রাখি, সোনার পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে সূচকে ০.৭৫% দর পড়ল রুপোরও। যার জেরে প্রতি কেজির দাম দাঁড়াল ৬৭,৯৮২ টাকা। যদিও গতকাল ০.৫৫% বৃদ্ধি দেখা দিয়েছিল রুপোর দামে। অন্যদিকে সোনার দামের পাশাপাশি বেশ কিছুদিন কেজিতে ৮০,০০০ টাকার কাছাকাছি পৌঁছানোর পরে রুপোর দামও আগের তুলনায় বেশ কিছুটা পড়েছে বলতেই হবে। উল্লেখ্য, ভারতের বৃহত্তম সূচক জানিয়েছে, এ যাবৎ সর্বকালীন বিক্রির রেকর্ড দেখা গিয়েছে রুপোয়। আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসের হিসেব বলছে, মোট ১৩৯.৯৬৫ টন রুপোর লেনদেন হয়েছে, যার বাজারমূল্য ৯৩৭ কোটি টাকা।